বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হিমাচলে ভূত হয়ে উঠার ভিডিও পোস্ট করে লিখেছেন, ‘হরর ছবির প্রতি ভালোবাসাই “ভূত পুলিশ” ছবিটিতে অভিনয়ের অন্যতম প্রধান কারণ। ছবিতে আমার ওপর ভূত আসর করেছিল। ভূতের আসর হওয়া একজনের চরিত্রে অভিনয় কিন্তু আমার মতো মানুষের জন্য সহজ ছিল না। এই চেহারা বানাতে প্রায় তিন ঘণ্টা সময় লেগেছিল। আর এ চেহারা ঠিকঠাক করতেও লেগে যায় প্রায় ৪৫ মিনিট। হিমাচলের ঠান্ডায় প্রতিদিন খালি পায়ে শুটিং আর তারে ঝোলাঝুলি করতে হয়েছে। কাঁধের ব্যথা নিয়েও সবকিছু নিজেই করেছি। নিয়মিত যোগব্যায়াম করতাম বলে বেঁচে গেছি। যদি কয়েকটা প্রশিক্ষণ করে নিতাম, তাহলে আরেকটু সুবিধা হতো। কিন্তু মহামারির বিধিনিষেধে সেই সুযোগ ছিল না। তবে আমার পক্ষে যতটুকু সম্ভব, করেছি। পেশাগত কারণে এসব চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হচ্ছে আর এগুলো আমার ভালোও লাগে এবং আমি এসব বারবার করব!’

default-image

‘ভূত পুলিশ’–এর টিমকে শ্রদ্ধা জানিয়ে ইয়ামি লিখেছেন, ‘আমাকে ভালোবাসার জন্য অনেক ধন্যবাদ আর আমার কষ্টগুলোর দাম দেওয়ার জন্যও।’ খ্যাতিমান মেকআপ শিল্পী সোমা গোস্বামীকে ধন্যবাদ দিয়েছেন তাঁকে সত্যিকারের ভূত বানিয়ে দেওয়ার জন্য এবং অ্যাকশন ডিরেক্টর জাভেদ করিমকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁকে যথাযথ দিকনির্দেশনা দেওয়ার জন্য। ইয়ামি লিখেছেন, ‘আপনাদের সহযোগিতা ছাড়া এসব ছিল অসম্ভব।’

default-image

‘ভূত পুলিশ’ ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন সাইফ আলী খান, অর্জুন কাপুর, জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ প্রমুখ। একটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পায় ছবিটি।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন