default-image

বিয়ের আগে দীপিকা আর রণবীরের প্রেম ছিল ছয় বছরের। তবে তা চলছিল চুপিসারে। আর এটি সম্ভব হয়েছে পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির বদৌলতে। ২০১৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত টানা তিনটি সিনেমা করেছেন দীপিকা আর রণবীর। ছবির সেটেই চলেছে চুটিয়ে প্রেম। সব কটি ছবিই বানসালির। রামলীলা, বাজিরাও মাস্তানি আর পদ্মাবত—তিনটি ছবিই দুর্দান্ত হিট। শুধু তা–ই নয়, রণবীর আর দীপিকা নিজেদের বুঝে নিতে, জীবনসঙ্গী হিসেবে পেতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে এই তিন ছবি।

default-image
বিজ্ঞাপন

২০১৫ সালের ১৮ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছিল সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত এবং দীপিকা ও রণবীর অভিনীত বাজিরাও মাস্তানি। গতকাল এই সিনেমার পাঁচ বছর পূর্তি উপলক্ষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের নাম বদলে ফেলেছেন দীপিকা। ইনস্টাগ্রাম আর টুইটারে নিজের নামের বদলে এখন দেখা যাচ্ছে ‘মাস্তানি’। নিজেকে তিনি মাস্তানি চরিত্রের মতোই মনে করেন। এক পোস্টে দীপিকা লিখেছেন, ‘সে হোক ভালোবাসা, অথবা যুদ্ধ! মাস্তানি যা চেয়েছে, তাই–ই করেছে। চলার পথ যত কঠিনই হোক না কেন, মাস্তানি নিজের ভাগ্য নিজের হাতে লিখেছে। কখনো আপস করেনি। কারও সামনে মাথা নত করেনি। নিজের মর্যাদা নিয়ে মেরুদণ্ড সোজা করে হেঁটেছে। তার জ্বলন্ত অঙ্গারের মতো ভালোবাসায় আর সবকিছুই ম্লান হয়ে গেছে। ধ্বংসস্তূপের ছাইয়ের মধ্যে মাস্তানি আর তার ভালোবাসা মিলিত হয়েছে।’

default-image

মাস্তানির মাধ্যমে দীপিকা যেন নিজের জীবনের উত্থান–পতন, উঠে দাঁড়িয়ে পথচলা আর জয়ী হওয়াকেই নির্দেশ করলেন। মাদক কেলেঙ্কারির খাতা থেকে এখনো নাম মুছে যায়নি তাঁর। তবে হার মানেননি দীপিকা। এর মধ্যে ভারতের গোয়ায় শকুন বাত্রার নাম ঠিক না হওয়া ছবির শুটিং শেষ করে এসেছেন। শিগগিরই শুরু হবে শাহরুখের সঙ্গে পাঠান ছবির কাজ। মুক্তির অপেক্ষায় আছে এইটি থ্রি।

২০১৫ সালের ১৮ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছিল সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত এবং দীপিকা ও রণবীর অভিনীত বাজিরাও মাস্তানি। গতকাল এই সিনেমার পাঁচ বছর পূর্তি উপলক্ষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের নাম বদলে ফেলেছেন দীপিকা।
default-image
বিজ্ঞাপন
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন