মায়ের মৃত্যুর শোক কীভাবে কাটালেন জাহ্নবী?

বিজ্ঞাপন
default-image

মাকে হারিয়েছেন বেশি দিন হয়নি। মাত্র চার মাস। এর মধ্যেই নিজের প্রথম ছবি ‘ধড়ক’-এর শুটিং শেষ করেছেন জাহ্নবী কাপুর। এখন ছবির প্রচারে অংশ নিচ্ছেন নিয়মিত। মা শ্রীদেবীর বড্ড ন্যাওটা ছিলেন জাহ্নবী। মায়ের মৃত্যুর পর এ বিষয় নিয়ে এত দিন মুখ খোলেননি। সম্প্রতি ‘ইন্ডিয়া টুডে’ পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মাকে নিয়ে মন খুলে কথা বলেছেন। মা হারানোর শোক কীভাবে কাটিয়ে উঠেছেন, তা-ও জানিয়েছেন।

শ্রীদেবীর মৃত্যু হয় গত ২৪ ফেব্রুয়ারি। দুবাইয়ের একটি হোটেলের বাথটাবে পড়ে গিয়ে মারা যান বলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী। মৃত্যুর আগের কয়েকটি দিন পরিবারের সবার সঙ্গে কাটালেও বড় মেয়ে জাহ্নবী তখন তাঁর কাছে ছিলেন না। ‘ধড়ক’ ছবির শুটিং করতে জাহ্নবী তখন ছিলেন মুম্বাইয়ে। মায়ের মৃত্যুর কয়েক সপ্তাহ পরই আবার কাজে নেমে পড়েন। প্রযোজক করণ জোহর অবশ্য তাঁকে সময় দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু জাহ্নবী শোকাতুর হয়ে ঘরে বসে থাকতে চাননি। এতে নাকি তিনি মানসিকভাবে আরও ভেঙে পড়তেন।

নবাগত এই নায়িকা বলেন, ‘ব্যাপারটা যদিও তখন আমার জন্য খুব সহজ ছিল না। কিন্তু পরিবারের পাশাপাশি কাজের মধ্যে থাকায় সামনে এগিয়ে চলার শক্তি পেয়েছি। “ধড়ক” ছবির শুটিং ফ্লোরে ফিরে না এলে এটা আমার জন্য খুব কষ্টকর হতো। এই ছবি আমাকে নানাভাবে রক্ষা করেছে।’

ছবির পরিচালক শশাঙ্ক খৈতান জানান, শ্রীদেবীর মৃত্যুর পর তাঁরা সেটের পরিবেশ যথাসম্ভব স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করতেন। কারণ, জাহ্নবীকে বেশি সহানুভূতি দেখাতে গেলে তিনি আরও বেশি ভেঙে পড়তেন। কী ঘটেছে, তা না ভেবে জাহ্নবীকে সামনে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করতেন সবাই মিলে।

ছোটবেলা থেকে চলচ্চিত্রের প্রতি নিজের আগ্রহের কথা জানান জাহ্নবী। নায়িকাই হবেন—শৈশবে এমন কোনো ভাবনা ছিল কি না মনে করতে পারেন না। তবে দিনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত চলচ্চিত্র নিয়েই থাকতেন। জাহ্নবীর বাবা চলচ্চিত্র নির্মাতা বনি কাপুর। কখনো বাবা নয়তো মায়ের শুটিং পড়ত জাহ্নবী আর তাঁর বোন খুশির ছুটির সময়। বেড়াতে গেলেও সিনেমা দেখতেন। বাড়িতে আলোচনার প্রধান বিষয়ও ছিল চলচ্চিত্র। জাহ্নবীর ভাষ্যমতে, ‘আমরা এই একটি বিষয়ই খুব ভালোভাবে জানি। এমন পরিবেশে বড় হয়েছি যে চলচ্চিত্র ছাড়া কিছু ভাবতে পারি না।’

‘ধড়ক’ মুক্তি পাবে আগামী ২০ জুলাই। এই ছবিতে নায়কের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঈশান খাট্টার। তিনি নায়ক শহিদ কাপুরের ভাই।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন