বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ছবির নায়িকা মীরা চোপড়া এবং তনুজ বিরওয়ানির কপাল ভালো, তাঁরা ছিলেন অন্য এক হোটেলে। সবশেষ খবর হচ্ছে, ঘটনার পর মীরা চোপড়া, তনুজ বিরওয়ানি, সুকেশ আনন্দসহ বেশ কয়েকজন ছবিটি থেকে বেরিয়ে গেছেন।

default-image

সংবাদমাধ্যমকে সুকেশ আনন্দ জানান, ‘মনে হয় না আমি ছবিটি করব। আমাদের খুব যন্ত্রণাদায়ক একটা সময় পার করতে হয়েছে। যে হোটেলে ছিলাম, তারাও আমাদের আগে কিছু জানায়নি। সাহায্যের আশায় টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির সিনিয়র অভিনয়শিল্পী নুপুর অলংকারের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে ট্যাগ করে একটি টুইট করেন।’ সুকেশ আরও বলেন, ‘এখনো আটজনকে হোটেল ছেড়ে বের হতে দিচ্ছে না কর্তৃপক্ষ। প্রযোজকের টাকা শেষ, সে জন্য আমরা অভিনয়শিল্পী বা কলাকুশলীরা কেন আটকে থাকব, এ জন্য তো আমরা দায়ী নই।’ তনুজ বিরওয়ানি বলেন, ‘সেখানে যে একটা ঝামেলা হয়েছে, সেটা আমি শুনেছি। কিন্তু মীরা এবং আমি চলে এসেছিলাম। বিস্তারিত কিছুই জানি না।’

default-image

অন্য এক সূত্র জানিয়েছে, গত তিন দিন সেখানে যা ঘটেছে, তা সন্দেহজনক। কোনো শুটিংই হয়নি। কোনো অভিনয়শিল্পীর কাছে সেখানকার ব্যাপারে কিছু জানতে চাইলে নানা অজুহাতে বিষয়টি তাঁরা এড়িয়ে গেছেন। ইলিয়াসও এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন