default-image

চারদিকে প্রশংসার ঝড় বইছে। পর্দায় প্রকৃতই ‘গুঞ্জন স্যাক্সেনা’ হয়ে উঠেছেন জাহ্নবী কাপুর। অনেকে জাহ্নবী অভিনীত ‘গুঞ্জন স্যাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল’ ছবিটি বর্জনের হুমকি দিয়েছিল। কারণ, সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর ‘স্বজন প্রীতি’ নিয়ে সমালোচনা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। তাই তারকার সন্তান হিসেবে জাহ্নবীকে একঘরে করার হুমকি আসছিল বারবার। তবে সবকিছু কাটিয়ে অভিনয় দিয়ে সবার মন জয় করেছেন শ্রীদেবীকন্যা জাহ্নবী।

গত বুধবার একটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে জীবনীচিত্র ‘গুঞ্জন স্যাক্সেনা’। আজ বৃহস্পতিবার ছবির নায়িকা জাহ্নবীর মা শ্রীদেবীর জন্মদিন। দারুণভাবে মায়ের অভাব বোধ করছেন তরুণ এই তারকা। মেয়ের প্রথম ছবিটি মা দেখে যেতে পারেননি। ‘ধড়ক’ মুক্তির কিছুদিন আগে মারা যান শ্রীদেবী। জাহ্নবী জানিয়েছেন, এটিই তাঁর জীবনের সবচেয়ে বড় আক্ষেপ। তবে শ্রীদেবী কখনোই চাননি জাহ্নবী ছবির জগতে আসুক। এ কথা স্বয়ং জাহ্নবী এক সাক্ষাৎকারে প্রথম আলোর মুম্বাই প্রতিনিধিকে বলেছিলেন। শ্রীদেবীকন্যা বলেছিলেন, ‘মা কখনোই চাননি যে আমি অভিনয়ের জগতে আসি। কারণ, এখানে প্রতি শুক্রবার ভাগ্য বদলে যায়। মায়ের মতে, আমি এই চাপ নিতে পারব না। কারণ, আমি খুবই নরম মনের মানুষ। তিনি চেয়েছিলেন, আমি যেন এক আরামদায়ক এবং চাপমুক্ত জীবন যাপন করি। তবে মা সিনেমার প্রতি আমার ভালোবাসা আর জেদের কাছে হার মেনেছিলেন।’

default-image

ছবি মুক্তি পেয়েছে। প্রশংসা কুড়াচ্ছেন শ্রীদেবীকন্যা। সুখের এই মুহূর্তগুলো ভাগাভাগি করে নেওয়ার জন্য সবচেয়ে কাছের ও সবচেয়ে প্রিয় মানুষটি আজ জাহ্নবীর পাশে নেই। মা শ্রীদেবীকে ভীষণ মিস করছেন তিনি। তার ওপর আজ শ্রীদেবীর জন্মদিন। মায়ের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করে জাহ্নবী লিখেছেন, ‘মাম্মা, আমি তোমাকে ভালোবাসি।’

ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রথম নারী বৈমানিক গুঞ্জন স্যাক্সেনার জীবনের ওপর নির্মিত হয়েছে ‘গুঞ্জন স্যাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল’ ছবিটি। মায়ের জন্মদিনে জাহ্নবী জানান পর্দার পেছনে তাঁর গুঞ্জন হয়ে ওঠার সফর-কথা। এই সফর মোটেও সহজ ছিল না। অনেক প্রতিকূলতা মোকাবিলা করতে হয়েছে তাঁকে। দীর্ঘদিন প্রশিক্ষণ নিতে হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কিছু দৃশ্যের জন্য আমাকে ওজন বাড়াতে হয়েছে, আবার কিছু দৃশ্যের জন্য কমাতে হয়েছে। বিমান চালানোর প্রশিক্ষণ নিয়েছি, যেটা আমার জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল।’

default-image

গুঞ্জনের জীবনের প্রতিটি মুহূর্তের সাক্ষী হতে চেয়েছিলেন জাহ্নবী। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গুঞ্জন ও তাঁর পরিবারের সঙ্গে আমি অনেকটা সময় কাটিয়েছি। খুব কাছ থেকে গুঞ্জনের শারীরিক ভাষা, হাবভাব, হাঁটাচলা সবকিছু লক্ষ করেছি। তিনি তাঁর বাবার সঙ্গে কীভাবে কথা বলেন, মা বা ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক কেমন, দীর্ঘদিন ধরে আমি কাছ থেকে সেসব দেখেছি।’

শরণ শর্মা পরিচালিত ‘গুঞ্জন স্যাক্সেনা: দ্য কার্গিল গার্ল’ ছবিতে জাহ্নবীর বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন পঙ্কজ ত্রিপাঠী ও ভাইয়ের চরিত্রে আছেন অঙ্গদ বেদি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0