default-image

তখনো বলিউডে অভিষেক হয়নি তাঁর। তার আগেই রীতিমতো সাড়া পড়ে গিয়েছিল সারা আলী খানকে নিয়ে। বলিউডে পা রেখেই তিনি নিজে ভক্তদের কথা দিয়েছিলেন, ‘আমাকে দিয়ে সব হবে।’ নেট দুনিয়াজুড়ে থাকত তাঁকে নিয়ে নানা খবর। আর অভিষেক ছবির পর রাতারাতি তারকা বনে যান সাইফ-অমৃতাকন্যা সারা। বলা যায়, এ প্রজন্মের তারকাদের ইঁদুরদৌড়ে তিনিই এগিয়ে। এবার নেট দুনিয়াতেও সবাইকে টেক্কা দিলেন সারা।
সারার বলিউড ক্যারিয়ারের বয়স মাত্র দুই বছর। আর ছবির সংখ্যাও তাঁর হাতে গোনা। কিন্তু মাত্র এই কম সময়ে সারার অনুরাগীর সংখ্যা আকাশছোঁয়া। বিশেষ করে ইনস্টাগ্রামে দারুণ সক্রিয় এই তারকাকন্যা। সারা তাঁর ব্যক্তিগত সফরের অনেক ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে থাকেন। নেট দুনিয়ায় তাঁর অসংখ্য গুণমুগ্ধ এবং নিবেদিত ভক্ত আছে। ইনস্টাগ্রামে সারার ফলোয়ারের সংখ্যা ৩০ মিলিয়ন পার করে গেছে। এত কম সময়ে এই অঙ্ক সারার সমসাময়িক আর কোনো তারকার নেই।

default-image
বিজ্ঞাপন

এ প্রজন্মের সারা একমাত্র অভিনেত্রী, যার অনুগামীর সংখ্যা ৩০ মিলিয়নের বেশি। তাই এই বলিউডকন্যার সাফল্যের মুকুটে আরেকটা পালক সংযোজিত হলো।

default-image

২০১৮ সালে ‘কেদারনাথ’ ছবির মাধ্যমে হিন্দি ছবির দুনিয়ায় পা রাখেন সারা। আর ক্যারিয়ারের প্রথম ছবিতেই বাজিমাত করেন তিনি। সম্প্রতি তাঁকে দেখা গেছে ‘কুলি নম্বর ওয়ান’ ছবিতে। ছবিটি ওটিটিতে মুক্তি পেয়েছিল। তবে আলোচনার চেয়ে সমালোচনাই বেশি হয়েছে এ ছবি নিয়ে। ছবি মুক্তির মাত্র কয়েক ঘণ্টায় ২ হাজার ১৬০ জন দর্শক ভোট করে রেটিং করেছেন। সেখানে এই ছবি ১০-এর ভেতর পেয়েছে মাত্র ১ দশমিক ৫। এমনও বলা হয়েছে, সারাকে দিয়ে আর যা-ই হোক, অভিনয়টা হবে না। একজন লিখেছেন, ‘সারা আলী খান, আপনি বলিউড ছেড়ে যান। একটা আইকনিক সিনেমাকে রিমেকের নামে এভাবে নষ্ট করবেন না।’ সারা তবে এসব আমলে নেননি। আপাতত সারা নিজেকে সব রকম নেতিবাচকতা থেকে সরিয়ে রেখেছেন। মন দিয়ে অক্ষয় কুমারের সঙ্গে ‘আতরাঙ্গি রে’ ছবির শুটিং করছেন।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন