বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

অরণ্যের দিনরাত্রি ১৯৭০ সালে ২০তম আন্তর্জাতিক বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবে গোল্ডেন বিয়ার পুরস্কারের জন্য প্রতিযোগিতা করে। দেশ–বিদেশে নানা সম্মাননা ও প্রশংসা পাওয়া সিনেমা ১৯৭০ সালে ভারতে মুক্তি পায়। কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে একটি সূত্র থেকে জানা যায়, ‘গুপি গাইন বাঘা বাইন’, ‘পরশপাথর’, ‘দেবী’ ও ‘মহানগর’ সিনেমাগুলো উদ্বোধনী সিনেমা হিসেবে প্রথম দিকে বিবেচনায় রাখা হয়েছিল। কিন্তু বেছে নেওয়া হয়েছে অরণ্যের দিনরাত্রি। এটা আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দের একটি সিনেমা। তিনি ‘অরণ্যের দিনরাত্রি’কে উদ্বোধনী সিনেমা হিসেবে চেয়েছেন। ওই দিন চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনীয় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন অমিতাভ বচ্চন, জয়া বচ্চন, শাবানা আজমিসহ অনেকে।

default-image

১৯৬৮ সালে প্রকাশিত সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের উপন্যাস ‘অরণের দিনরাত্রি’। সেই উপন্যাস অবলম্বনে সত্যজিৎ রায় দুই বছর পরে নির্মাণ করেন ‘অরণ্যের দিনরাত্রি’ সিনেমা। মূল কাহিনি ঠিক রেখে কাঠামো, চরিত্র, লোকেশনে কিছুটা পরিবর্তন আনেন নির্মাতা; যা গল্পকে আরও বেশি জীবনঘনিষ্ঠ করে। গল্পে চার বন্ধু, অসীম, সঞ্জয়, হরি ও শেখর। তারা কলকাতায় বসবাস করেন। ছুটি কাটাতে পালামৌতে আসেন। সেখানে একটি ট্যুরিস্ট বাংলোতে থাকেন। উদ্দেশ্যহীনভাবে জঙ্গলে ঘুরতে বের হলেও নানান ঘটনায় আন্তসম্পর্কের গল্প হয়ে এগিয়ে চলে ‘অরণ্যের দিনরাত্রি’র চরিত্রগুলো। সিনেমায় অভিনয় করেছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, শর্মিলা ঠাকুর, কাবেরি বসু, শুভেন্দু চট্টোপাধ্যায়, রবি ঘোষ, সমিত ভঞ্জ, পাহাড়ী সান্যাল প্রমুখ।

default-image

২৭তম কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশের প্রখ্যাত মূখ অভিনেতা পার্থপ্রতিম মজুমদার অভিনীত ‘দ্য হোলি কন্সপ্যাইরেসি’ ও মোশাররফ করিমের ‘ডিকশনারি’ সিনেমাটি স্পেশাল স্ক্রিনিং শাখায় প্রদর্শন করা হবে। এ ছাড়া সিনেমা ইন্টারন্যাশনাল শাখায় কান চলচ্চিত্র উৎসবের স্বর্ণপাদ বা পামজয়ী ‘তিতান’ ও কানের অফিশিয়াল শাখায় প্রতিযোগিতা করা ‘অ্যানেত’, আ হিরোসহ মোট ২৩টি সিনেমা প্রদর্শিত হবে। উৎসবে ১৫টি শাখায় সিনেমা দেখানো হবে। একাডেমি পুরস্কারের সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা সিনেমাগুলোও উৎসবে আলোড়ন ছড়ানোর অপেক্ষায় রয়েছে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন