রাজনীতি নিয়ে শাহরুখ

বিজ্ঞাপন
default-image

বলিউডে হালে পানি পাচ্ছেন না শাহরুখ খান। সাম্প্রতিক তাঁর ছবিগুলোর বক্স অফিস ধস সে কথাই বলে। মনযোগটা কি খান সাহেবের এখন নেটফ্লিক্সের দিকে? এমনটাই গুঞ্জন বলিউডে। পরপর নেটফ্লিক্সে দু–দুটি সিরিজ প্রযোজনা করলেন। নিজস্ব প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রেড চিলিসের ব্যানারে তৈরি হচ্ছে এগুলো। এখন শোনা গেল, আরেকটি সিরিজের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আর এটি হবে ভারতীয় রাজনীতি নিয়ে।

দুটি সিরিজের একটি হলো ‘দ্য ব্ল্যাড শেড’। এমরান হাশমি কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন সিরিজটির। অন্য সিরিজটির নাম ‘ক্লাস অব ৮৩’। সেখানে অভিনয় করেছেন ববি দেওল। অভিনয় দিয়ে নিজেকে মেলে ধরতে পারছেন না শাহরুখ। তাতে কী? প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রেড চিলিস দিয়ে একের পর এক প্রযোজনা নির্মাণ করছেন তিনি।

রাজনীতি নিয়ে এই সিরিজটি তৈরি হবে অনলাইন প্ল্যাটফর্মের জন্য। রেড চিলিসই প্রযোজনা করছে এটি। থ্রিলার ঘরানার সিরিজটিতে উঠে আসবে ২০০০ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ভারতীয় রাজনীতির যাত্রা। তার মানে, পর্দায় ভারতীয় রাজনীতির গুরুত্বপূর্ণ সব মানুষ উঠে আসছেন পর্দায়। তবে শুধু সত্য কাহিনি নিয়ে এটি হচ্ছে না। রাজনীতির সত্য গল্প যেমন থাকবে, তেমনি থাকবে কল্পনার মিশেলও। মূলত ভারতের দুটি জনপ্রিয় রাজনৈতিক দলের দ্বন্দ্ব–হিসাব নিকাশ নিয়েই এগোবে সিরিজটি।

ভারতীয় একজন রাজনীতিবিশেষজ্ঞ কলাম লেখককে পরামর্শক হিসেবে রাখ হয়েছে, যাতে সিরিজটি বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় হয়। পাশাপাশি কোনো ধরনের ভুল হওয়ার আশঙ্কা না থাকে। এখন চলছে পান্ডুলিপি তৈরির কাজ। পান্ডুলিপির কাজ শেষ হলেই তারকাদের নাম ঘোষণা করা হবে। ঘোষণা করা হবে পরিচালকের নামও।

থ্রিলার ঘরানার সিরিজটি যেহেতু রাজনীতি নিয়ে, তাই এখানে উঠে আসবেন ভারতীয় প্রখ্যাত সব রাজনীতিবিদ। তাঁদের চরিত্রায়নে নিশ্চয়ই চমকও থাকবে। তাতে দেখা যেতে পারে ভারতীয় জনপ্রিয় সব বলিউড তারকাকেও। তবে এই সিরিজে শাহরুখ খান নিজে অভিনয় করবেন কি না, তা এখনো জানা যায়নি।

শাহরুখ খানের সবশেষ ছবি ‘জিরো’। ‘জিরো’ দিয়ে হিরো হতে পারেননি তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে তাঁর ছবিগুলো বক্স অফিসে কেমন নিষ্প্রভই দেখা গেছে। হালে পানি আনতে এখন কী ঘোষণা দেবেন, আপতত সেদিকেই তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে ভক্তদের। অনেকেই আবার মনে করছেন, খানদের যুগ তাহলে শেষ হচ্ছে। শাহরুখ খান ছাড়াও অন্য খানেরাও খুব একটা সুবিধে করতে পারছেন না এই সময়ে। বিপরীতে তরুণ অভিনয়শিল্পীরা বেশ এগিয়ে আছেন। তাঁদের ছবিগুলো কম বাজেটে নির্মাণ হলেও বক্স অফিসে সফল হচ্ছে দিন দিন। এই কাতারে আয়ুষ্মান খুরানা, নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী, ভিকি কুশল, রাজ কুমার রাওদের কথা বলা যায় নির্দ্বিধায়। এখন নিজেদের ফিরিয়ে আনতে খানেরা কী আনছেন নতুন করে, সেদিকেই অপেক্ষা!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন