default-image

বছরখানেক কি বলিউড, কি টুইটার, কি রাজনীতি—সব মাঠে একাই শব্দবোমার ছক্কা হাঁকিয়েছেন কঙ্গনা রনৌত। তিন-তিনটি জাতীয় পুরস্কারজয়ী এই তারকার অভিনয়প্রতিভা নিয়ে কারও কোনো সন্দেহ নেই। তবে অনেকে বলেন, তাঁর নজর এখন রাজনীতিতে। আর তিনি সেখানকারও পাকা খেলোয়াড়। আবার কেউ কেউ বলেন, কঙ্গনার মাথা কিঞ্চিৎ বিগড়ে গেছে। সে যা-ই হোক, নতুন নতুন বিতর্ক নিয়ে হাজির হতে যেন কোনো ক্লান্তি নেই কঙ্গনার। সম্প্রতি শুরু হয়েছে ‘রিয়ানা’–বিতর্ক।

default-image

ভারতে চলছে কৃষক আন্দোলন। সেই বিক্ষোভকারীদের সমর্থনে টুইট করে সমর্থন জানিয়েছেন ভারত ও ভারতের বাইরের অসংখ্য তারকা আর নেতা। সেই তালিকায় আছেন নয়টি গ্র্যামিজয়ী সংগীত তারকা রিয়ানাও। তাই রিয়ানার উদ্দেশে একের পর এক বাক্যবাণের বিষময় টুইট করেছেন কঙ্গনা। মার্কিন এই ‘সেক্স সিম্বল’ পপস্টারকে ‘পর্নো গায়িকা’ বলছেন।

বিজ্ঞাপন

বলেছেন, ‘রিয়ানা ভারতের সুনিধি চৌহান বা নেহা কক্করদের মতো নিম্নশ্রেণির গায়িকা।’ আর এবার বললেন, কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে টুইট করার জন্য কমপক্ষে ১০০ কোটি রুপি নিয়েছেন রিয়ানা। ৩৩ বছর বয়সী এই ‘কুইন’ অভিনেত্রী বলেন, ‘ভারতকে নির্মমভাবে টুকরো করার ষড়যন্ত্র চলছে। মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে এই টুইট করেছে রিয়ানা। অন্তত ১০০ কোটি টাকা তো নিয়েছেই। কারা এই অর্থ ঢালছে? তাদের খুঁজে বের করা হোক। যত্ত সব “বিদেশি ষড়যন্ত্র”!’

default-image

২০১৯ সালের ফোর্বস ম্যাগাজিনের তালিকা অনুসারে ৩৩ বছর বয়সী রিয়ানার মোট সম্পদের পরিমাণ পাঁচ হাজার কোটি টাকা। আর এই অর্থ নিয়ে তিনি বিশ্বের সবচেয়ে ধনী সংগীত তারকা। এই দুই বছরে তা বেড়েছে বৈ কমেনি। ২০১২ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত টানা আট বছর রিয়ানা বিশ্বের সেরা ১০০ প্রভাবশালীদের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন।

একগাদা গ্র্যামির সঙ্গে ১৩টি মিউজিক অ্যাওয়ার্ড, ১২টি বিলবোর্ড অ্যাওয়ার্ড, ৬টি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস শোভা পাচ্ছে তাঁর শোকেসে। কঙ্গনার টুইট নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি রিয়ানা। কেবল রিয়ানা নন, একই ইস্যুতে সুইডিশ পরিবেশবাদী গ্রেটা থুনবার্গকেও একহাত দেখে নিয়েছেন কঙ্গনা।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন