default-image

পুরোনো চাল ভাতে বাড়ে। কথাটা যথার্থ অক্ষয়ের ক্ষেত্রে। যত দিন যাচ্ছে, বলিউড সুপারস্টার অক্ষয় কুমারের চাহিদা ততই বাড়ছে। নামীদামি সব প্রযোজক এই বলিউড তারকার পেছনে রীতিমতো লাইন দিয়েছেন। এমনকি অক্ষয়ের আকাশছোঁয়া চাহিদা হাসিমুখে মেনে নিচ্ছেন তাঁরা। বলা যায়, এই মুহূর্তে অ্যাকশন থেকে কমেডি—সব ঘরানার ক্ষেত্রে সব থেকে বড় ‘তুরুপের তাস’ বলিউডের ‘মিস্টার খিলাড়ি’। এবার এক কমেডি ছবির জন্য বড়সড় দর হাঁকালেন অক্ষয়।

default-image

কমেডি, রোমান্স, অ্যাকশন, ফ্যামিলি ড্রামা—সব মিলিয়ে অক্ষয়ের হাতে এখন একাধিক প্রজেক্ট। এর মধ্যে শোনা গেল, ‘পতি, পত্নী ঐর ও’খ্যাত  মুদাসসর আজিজ তাঁর পরের কমেডি ছবির জন্য অক্ষয়কে নিয়েছেন। চুক্তিপত্রও স্বাক্ষরিত হয়েছে। মজার বিষয় হচ্ছে, শিল্পী ও কলাকুশলীদের পারিশ্রমিক বাদে এই ছবির বাজেট ৩৫ থেকে ৪০ কোটি রুপি। আর লোক হাসাতে অক্ষয় একাই নিচ্ছেন ১০০ কোটি রুপি বা ১১৪ কোটি টাকা। তাই অক্ষয়ের পারিশ্রমিকসহ মুদাসসরের এই ছবির বাজেট গিয়ে দাঁড়াবে প্রায় ১৫০ কোটি রুপিতে। আর এই টাকা আসবে প্রযোজক জ্যাকি আর বাসু ভাগনানির পকেট থেকে।

বিজ্ঞাপন

‘বেল বটম’ ছবির শুটিংয়ের সময়ই নির্মাতারা এই কমেডি ছবির গল্প শেয়ার করেছিলেন অক্ষয়ের সঙ্গে। আর গল্পটা এই বলিউড তারকার দারুণ পছন্দ হয়। সঙ্গে সঙ্গে তিনি ছবিটি করার সম্মতি দেন। ‘বেল বটম’ ছবির জন্য অক্ষয় বড়সড় পারিশ্রমিক নিয়েছেন।

default-image

এই বলিউড সুপারস্টার ৪৫ দিনের মধ্যে এই কমেডি ছবিটির শুটিং শেষ করবেন। আর নির্মাতারা মাত্র এই কদিনের জন্যই এই মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক দিতে প্রস্তুত।
নির্মাতাদের বিশ্বাস যে সিনেমা শুধু অক্ষয়ের নামের জোরেই ভালো ব্যবসা করতে পারবে। সিনেমা হল ছাড়া ডিজিটাল আর স্যাটেলাইট রাইটস থেকেও ভালো আয় হবে বলে মনে করেন নির্মাতারা। তাই কোনোভাবেই ক্ষতির মুখ তাঁরা দেখবেন না। খরচ পুষিয়ে উঠবে বলেই তাঁদের অনুমান।

default-image

২০২১ সালের জুলাইয়ে ছবিটির শুটিং শুরু হওয়ার কথা। এই আট মাসে অক্ষয় হাতের সব কাজ শেষ করবেন। মুদাসসরের এই অফুরান হাসির ছবি ২০২২ সালের শুরুর দিকে মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

মন্তব্য পড়ুন 0