default-image

দিওয়ালিতে মুক্তি পাচ্ছে ফাতিমা সানা শেখ অভিনীত দমফাটানো হাসির ছবি সুরজ পে মঙ্গল ভারি। ফাতিমা ছুটি কাটাচ্ছেন হিমাচলে। ছুটির মধ্যেই মুঠোফোনে ফাতিমা ধরা দিলেন প্রথম আলোর মুম্বাই প্রতিনিধির কাছে।

শুরুতেই অভিষেক শর্মা পরিচালিত এই ছবির প্রসঙ্গ উঠে এল। মনোজ বাজপেয়ির মতো জাঁদরেল অভিনেতার সঙ্গে তিনি অভিনয় করেছেন। অনুভূতি কী? একরাশ উচ্ছ্বাস নিয়ে ফাতিমা বলেন, ‘মনোজ বাজপেয়ি অভিনয়ের মহারথী। মনোজ স্যারের কাছ থেকে অভিনয় নিয়ে নানা টিপস নিতাম। এমনকি যেকোনো পরামর্শের জন্য তাঁকে ফোনও দিয়েছি। মানুষ হিসেবেও তিনি অসাধারণ।’

বিজ্ঞাপন

ফাতিমার বলিউড সফর ছোট। তবে এই ছোট্ট সফরে আমির খান ও অমিতাভ বচ্চনের সহশিল্পী হয়েছেন তিনি। ফাতিমা বলেন, ‘তাঁরা প্রত্যেকেই অভিনয়ের প্রতি নিবেদিত। দুজনই সময়মতো সেটে আসতেন। অমিতাভ স্যারের সঙ্গে আমি কম সময় কাটিয়েছি।’

এই ছবির চূড়ান্ত ব্যর্থতাও তাড়া করে ফাতিমাকে। এক দীর্ঘশ্বাস নিয়ে ফাতিমা বলেন, ‘এটি আমার জন্য অনেক বড় ধাক্কা ছিল। আমি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলাম। মনে হয়েছিল, আমার ক্যারিয়ারের এখানেই ইতি। এক রেস্তোরাঁয় পরিচালক অভিষেকের সঙ্গে আমার দেখা হয়। আমি তাঁকে বলি, আমার হাতে কোনো কাজ নেই। কোনো কাজের খবর থাকলে যেন আমাকে জানান। তখনই অভিষেক আমাকে এই ছবির প্রস্তাব দেন।’

default-image

কথায় কথায় ফাতিমা জানান, শিশুশিল্পী হিসেবে তাঁর অভিনয়ের কথা। কমল হাসান, শাহরুখ খানসহ আরও অনেকের সঙ্গে কাজ করেছেন শৈশবে। সেই স্মৃতিচারণা করে ফাতিমা বলেন, ‘কমল স্যারের সঙ্গে চাচি ৪২০ ছবিটি করার সময় দারুণ মজা করেছিলাম। এই ছবির শুটিংয়ের জন্য বিভিন্ন হোটেলে ঘুরে বেড়াতাম। আর আমার কাছে সেটটা ছিল একটা খেলার মাঠের মতো। দীর্ঘদিন পর এক রেস্তোরাঁয় কমল স্যারের সঙ্গে দেখা হয়। তিনি আমাকে প্রথমে চিনতে পারেননি। পরে পরিচয় দিই। শাহরুখ স্যারের সঙ্গে আমি ওয়ান টু কা ফোর ছবিতে কাজ করেছি। সেই সময় থেকে আমি শাহরুখের প্রেমে পাগল। আজও একই রকমভাবে তাঁকে ভালবাসি। তাঁর সঙ্গে অনেক দিন পর যখন দেখা হয়, তখন আমি কথা বলতে পারিনি। আমি শাহরুখের দিকে হাঁ করে তাকিয়ে ছিলাম।’

default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0