সংসদে জয়া বচ্চনের বক্তব্য নিয়ে হইচই

সংসদে জয়া বচ্চনের বক্তব্য নিয়ে হইচই
সংসদে জয়া বচ্চনের বক্তব্য নিয়ে হইচইইনস্টাগ্রাম
বিজ্ঞাপন
“হাতে গোনা দুএকজন মানুষের মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নিয়ে সমগ্র বলিউড ইন্ডাস্ট্রির দুর্নাম হচ্ছে। এটা বলিউডের আসল ছবি নয়। আন্তর্জাতিকভাবে সুনাম কুড়ানো বলিউডকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। এরা যে থালায় বসে খায়, সেই থালারই দুর্নাম গায়।”
জয়া বচ্চন

ঘটনার শুরু সোমবার, সংসদে দাঁড়িয়ে বলিউডে মাদক কারবারি নিয়ে জয়া বচ্চনের বক্তব্যকে ঘিরে শুরু হয় তর্ক–বিতর্ক। সাংসদ জয়া বচ্চন বলেন, ‘হাতে গোনা দুএকজন মানুষের মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নিয়ে সমগ্র বলিউড ইন্ডাস্ট্রির দুর্নাম হচ্ছে। এটা বলিউডের আসল ছবি নয়। আন্তর্জাতিকভাবে সুনাম কুড়ানো বলিউডকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। এরা যে থালায় বসে খায়, সেই থালারই দুর্নাম গায়। ৭২ বছর বয়সী অভিনেত্রী ও সমাজবাদী পার্টির এই নেত্রী আরও জানান, যে কয়েকটা হাতে গোনা অভিযোগ আনা হচ্ছে, তার সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন আছে। কোনো অভিযোগ এখন পর্যন্ত প্রমাণিত নয়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ট্রলের যুগে জয়ার এই বক্তব্য কালবৈশাখী তুলেছে অনলাইনে। তাঁকে বলা হচ্ছে ‘ভণ্ড’। টুইটারে চলছে ‘হ্যাশট্যাগ শেম অন জয়া বচ্চন’ ট্রেন্ড। কাকে বাঁচাতে চাচ্ছেন জয়া বচ্চন? এমন প্রশ্নও উঠেছে। তাই নিরাপত্তার খাতিরে বচ্চনদের বিখ্যাত জুহুর বাড়ি ‘জলসা’র সামনে পুলিশ মোতায়েন করেছে বৃহন মুম্বাই করপোরেশন (বিএমসি)।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image
‘আমি নাম, অর্থ, সম্মান—এসব পেয়েছি বলিউড থেকে। তাই কেউ বা কোনো দল যখন চক্রান্ত করে বলিউডের নাম ভাঙিয়ে নিজের উদ্দেশ্য হাসিল করতে চায়, আমি দুঃখ পাই।’
হেমা মালিনী

এমন সংকটপূর্ণ মুহূর্তে জয়ার পাশে দাঁড়িয়েছেন আরেক বলিউড তারকা ও এমপি হেমা মালিনী। তিনি এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কঙ্গনার দিকে পরোক্ষভাবে আঙুল তুলে বলেন, ‘যে বা যারা বলছে বলিউডের শতকরা ৯৯ ভাগ মানুষ মাদকাসক্ত, সবার আগে তার মাদকের পরীক্ষা করা হোক।’ সাক্ষাৎকারে হেমা মালিনী আরও বলেন, ‘আমি নাম, অর্থ, সম্মান—এসব পেয়েছি বলিউড থেকে। তাই কেউ বা কোনো দল যখন চক্রান্ত করে বলিউডের নাম ভাঙিয়ে নিজের উদ্দেশ্য হাসিল করতে চায়, আমি দুঃখ পাই।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image
‘এমপি জয়া বচ্চন সংসদে দাঁড়িয়ে খুবই কাণ্ডজ্ঞানহীনের মতো কথা বললেন। তিনি আসলে কাকে বাঁচাতে চাচ্ছেন? চলমান তদন্তে অসংখ্য নাম বেরিয়ে আসছে। তিনি যেভাবে অন্ধকার আড়াল করার চেষ্টা করছেন, তা অত্যন্ত লজ্জাজনক।’
কৃষ্ণ সাগর রাও, তেলেঙ্গানার বিজেপি নেতা

অন্যদিকে তেলেঙ্গানার বিজেপি নেতা কৃষ্ণ সাগর রাও এক হাত দেখে নিয়েছেন জয়া বচ্চনকে। এমনিতেই দক্ষিণ ভারতীয় চলচ্চিত্রশিল্প বলিউডের আড়ালে পড়ে গেছে। এই সব ইন্ডাস্ট্রির মানুষেরা মনে করে, বলিউড ‘ওভাররেটেড’। তাই বলিউডের নেতিবাচক খবর দিয়েই নিজেদের ইন্ডাস্ট্রির ব্র্যান্ডিং করতে তাঁরা ভুলছেন না। বলিউডে মাদক নিয়ে যখন কাদা–ছোড়াছুড়ি চলছে, তখন সেই মিছিলে অংশ নিয়েছেন দক্ষিণ ভারতীয় এই নেতা।

হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, এমপি জয়া বচ্চন সংসদে দাঁড়িয়ে খুবই কাণ্ডজ্ঞানহীনের মতো কথা বললেন। তিনি আসলে কাকে বাঁচাতে চাচ্ছেন? চলমান তদন্তে অসংখ্য নাম বেরিয়ে আসছে। তিনি যেভাবে অন্ধকার আড়াল করার চেষ্টা করছেন, তা অত্যন্ত লজ্জাজনক।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন