default-image

এক জীবনে কত উত্থান–পতন মানুষটার! ১৯৮১ সালের ৩ মে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিলেন সঞ্জয়ের মা নার্গিস। আর ব্রেন টিউমারের কারণে হারাতে হয়েছিল প্রথম স্ত্রী রিচা শর্মাকে। মাদকের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন দীর্ঘদিন। ১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ে সংঘটিত ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণে জড়িত ব্যক্তিদের কাছ থেকে অবৈধভাবে অস্ত্র রাখার অপরাধে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল। কখনো জেলের ভেতরে তো কখনো বাইরে; এভাবেই জীবন কাটছে বলিউডের অভিনেতা সঞ্জয় দত্তের। মুক্ত হয়ে বেশ কাটছিল জীবন–সংসার। তবে সেখানেও নেমে এসেছে ঝড়। বলিউডে ক্রমাগত খারাপ খবরের তালিকায় যুক্ত হলো সঞ্জয়ের নাম। জানা গেল, মরণব্যাধি ক্যানসারে ভুগছেন সঞ্জয় দত্ত। তা–ও আবার প্রাথমিক পর্যায়ে নয়। ফুসফুসে ক্যানসার ধরা পড়েছে স্টেজ ফোরে!

default-image

শ্বাসকষ্ট ও বুকে যন্ত্রণা নিয়ে গত শনিবার সন্ধ্যায় মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ৬১ বছর বয়সী এই অভিনেতা। সোমবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান তিনি। অনুরাগীরা প্রিয় নায়ক সুস্থ হয়ে উঠেছেন ভেবে যখন স্বস্তিতে ছিলেন, ঠিক তখনই এই দুঃসংবাদ হু হু করে উদ্বেগ ছড়ায়। এর মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পরোক্ষভাবে নিজের অবস্থান জানালেন, নিলেন সাময়িক ছুটি। জানিয়ে দিলেন বিরতির পর আবার ফিরবেন। লিখেছেন, ‘চিকিৎসার কারণে কাজ থেকে ছোট্ট অবসর নিচ্ছি। পরিবার ও বন্ধুরা আমার পাশে আছেন এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের উদ্দেশে আবেদন জানাচ্ছি যে আমার জন্য দুশ্চিন্তা বা অযথা চিন্তা করবেন না। আপনাদের ভালোবাসা ও শুভকামনায় শিগগিরি ফিরে আসব।’

default-image

রাতে খবরটি প্রকাশ পায়। প্রথমে বলিউডের চলচ্চিত্র বাণিজ্য বিশ্লেষক ও সমালোচক কমল নেহতা মঙ্গলবার রাত ১০টা ৪৮ মিনিটে টুইটারে জানান, ‘সঞ্জয় দত্ত ফুসফুসের ক্যানসারে আক্রান্ত। আসুন, তাঁর দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য প্রার্থনা করি।’ পরে অভিনেতা শেখর সুমনের ছেলে অধ্যয়ন সুমনও টুইট করে সঞ্জয় দত্তের ক্যানসারের খবর জানান। তাঁর আরোগ্য কামনাও করেন অধ্যয়ন। মধ্যরাতে আগুন লাগার মতোই খবরটি ছড়িয়ে পড়ে। ভারত থেকে প্রকাশিত সংবাদমাধ্যম ফিল্মফেয়ার, হিন্দুস্তান টাইমস, মুম্বাই লাইভ, বলিউড হাঙ্গামা একাধিক সূত্র অনুসারে প্রকাশ করেছে, সঞ্জয় দত্ত ফুসফুসের ক্যানসারে ভুগছেন। লীলাবতী হাসপাতালের নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা জানান, গত শনিবার সঞ্জয়ের কোভিড টেস্ট নেগেটিভ আসার পরও শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। এরপর ক্যানসার পরীক্ষা করা হয়। তখনই ফুসফুসের ক্যানসার ধরা পড়ে। তবে সঞ্জয়ের চিকিত্সক জালিল পারকারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

default-image

মঙ্গলবার প্রায় মধ্যরাতে এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই উদ্বিগ্ন সঞ্জয় দত্ত ভক্তরা। ভারত এমনকি বাংলাদেশেও অনেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সঞ্জয়ের ছবি দিয়ে দ্রুত সেরে ওঠার মন্তব্য দেন। এর মধ্যেই বুধবার দুপুরে স্ত্রী মান্নতা দত্ত সঞ্জয় দত্তের অসুস্থতা নিয়ে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেন। তিনি বলেন, এটা গোটা পরিবারের জন্য একটা কঠিন সময়। তবে তিনি নিশ্চিত এই সময়টাও কেটে যাবে। তিনি লিখেছেন, ‘যাঁরা সঞ্জয়ের আরোগ্য কামনা করে প্রার্থনা করছেন এবং শুভকামনা জানিয়েছেন, আমি তাঁদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। এই কঠিন সময়টা পার করতে আপনাদের সবার শক্তি ও প্রার্থনা আমাদের খুব প্রয়োজন। গত কয়েক বছরে আমাদের পরিবার অনেক খারাপ সময় দেখেছে, পার করেছে। আমি নিশ্চিত এই সময়টাও কেটে যাবে।’

default-image

মান্নতা সঞ্জয় দত্তের ভক্তদের অনুরোধ জানিয়ে লিখেছেন, ‘আমি সঞ্জুর ফ্যানদের বলতে চাই। দয়া করে কোনো ভুয়া খবরে কান দেবেন না। তবে আমাদের জন্য ভালোবাসা, উষ্ণতা ও সমর্থন চালিয়ে যান। সঞ্জু বরাবর একজন যোদ্ধা। সৃষ্টিকর্তা আমাদের আবারও পরীক্ষায় ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই চ্যালেঞ্জটা পার করতেই হবে।’

সম্প্রতি ৬১ বছরে পা দিয়েছেন এই অভিনেতা। ২৯ জুলাই ঘরোয়াভাবেই তাঁর জন্মদিন উদ্‌যাপিত হয়। জন্মদিনের দিন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সঞ্জয় দত্ত তাঁর পরিবারের ছবি পোস্ট করেন। এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের আসন্ন ছবি ‘কে জি এফ চ্যাপ্টার-টু’–এর ফার্স্ট লুক পোস্টার শেয়ার করেন এই অভিনেতা। এই ছবিতে খলনায়ক অধীরার চরিত্রে দেখা দেবেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0