করণ জোহর: ভারতের রাষ্ট্রপতির নাম কী?
আলিয়া ভাট: পৃথ্বীরাজ চৌহান!

কফি উইথ করণ অনুষ্ঠানে এমন বক্তব্যের পর বলিউডে আলিয়ার ইমেজ শুরুতেই একটা বড় ধাক্কা খায়। বলিউডের বড় পর্দায় পা রাখতে না রাখতেই আলিয়ার তারকা ইমেজ বড় একটা প্রশ্নবোধক চিহ্নের সম্মুখীন হয়। যাঁদের আইকিউ (ইন্টেলিজেন্স কোশ্চেন) সবচেয়ে কম, আলিয়ার সঙ্গে তাঁদের তুলনা শুরু হয়। এমনকি সংবাদ সম্মেলনেও আলিয়াকে সাধারণ জ্ঞান প্রশ্ন করা শুরু হয়। সেই জায়গা থেকে আলিয়া নিজের ইমেজ নতুন করে সফলভাবে গড়েছেন।

default-image

অল্প সময়ে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন সু-অভিনেত্রী হিসেবে। ফিটনেস আর ফ্যাশন আইকন হিসেবেও ছড়িয়ে পড়ছে আলিয়ার নাম। আজ অল্প সময়ে বলিউডের একেবারে প্রথম কাতারে জায়গা করে নেওয়া এ অভিনেত্রীর ২৮তম জন্মদিন। জন্মদিনে জেনে নেওয়া যাক তাঁর কিছু মজার গল্প আর অভ্যাস।

default-image

প্রেমিকের করোনা, তাই বলে কি পার্টি হবে না?

‘হাইওয়ে’, ‘উড়তা পাঞ্জাব’, ‘রাজি’, ‘গাল্লি বয়’, ‘কলঙ্ক’—নিজের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে একটির চেয়ে আরেকটিতে আরও ভালো অভিনয় করেছেন তিনি। কথা ছিল, জন্মদিনে প্রেমিক রণবীর কাপুর পার্টি দেবেন। সেখানে সারা দিন, সারা রাত হইচই করবেন আলিয়া। কিন্তু প্রেমিকের করোনা হওয়ায় মনের দুঃখে পার্টিই বাতিলের ঘোষণা দিয়েছিলেন আলিয়া। তাই বলে কি আলিয়ার জন্মদিনের পার্টিই হবে না? তা–ই কী হয়! আলিয়ার নামে পার্টি দিয়েছেন বলিউডের প্রযোজক করণ জোহর। আর সেখানেই দিন কাটাচ্ছেন এ তারকা।

‘ওর (রণবীর কাপুর) সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব আমার জীবনের সেরা অর্জন। এ অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। মনে হচ্ছে, আমি একটা তারা থেকে আরেকটা তারায় লাফিয়ে লাফিয়ে যাচ্ছি। আর মেঘের ভেতর হাঁটছি।’
প্রেমে পড়ার অনুভূতি নিয়ে আলিয়া
default-image


তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়


রণবীর কাপুর সম্পর্কে আলিয়া বলেন, ‘আমি ভাবতাম, ওর বুঝি খুব ভাব। কিন্তু প্রথম দেখায় আমার সে ভুল ভাঙে। ও খুব সাধারণ। ও আমার চেয়ে ভালো অভিনয়শিল্পী, ভালো মানুষ, সবকিছুতেই সেরা। আমি মাঝেমধ্যে ভাবি, আমি যদি এর মতো হতে পারতাম!’ প্রেমে পড়লে কেমন লাগে, এমন প্রশ্নের  আলিয়া বলেন, ‘আমি সততার সঙ্গে একটা সত্য বলতে চাই। ওর সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব আমার জীবনের সেরা অর্জন। এ অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। মনে হচ্ছে, আমি একটা তারা থেকে আরেকটা তারায় লাফিয়ে লাফিয়ে যাচ্ছি। আর মেঘের ভেতর হাঁটছি।’

default-image
বিজ্ঞাপন

‘সঙ্গে সঙ্গে বুঝে গেলাম, ও টিকে যাবে’


একসময় আলিয়া ভাটের ওজন ছিল অনেক। অনেকখানি ওজন কমিয়ে তবেই এক দশক আগে আলিয়া গিয়েছিলেন অডিশন দিতে। করণ জোহরের ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ ছবির জন্য নতুন মুখ খোঁজা হচ্ছিল। সেখানে ‘বাহারা বাহারা’ গানে আলিয়া ভাটকে নাচতে দেখেই মনে ধরে যায় করণের।

‘ওকে দেখেই মনে হলো ও একেবারে “বলিউড টাইপ”। কারিনার সঙ্গে কোথায় যেন মিল আছে। মনে হলো, একেই আমি খুঁজছি। ও যখন নাচতে শুরু করল, কী যেন ছিল ওর ভেতর, আর আমি সঙ্গে সঙ্গে বুঝে গেলাম, ও টিকে যাবে।’
আলিয়ার সম্পর্কে করণ জোহর
default-image

অনেক পরে সেই অডিশনের কথা মনে করে তিনি বলেছিলেন, ‘ওকে দেখেই মনে হলো ও একেবারে “বলিউড টাইপ”। কারিনার সঙ্গে কোথায় যেন মিল আছে। মনে হলো, একেই আমি খুঁজছি। ও যখন নাচতে শুরু করল, কী যেন ছিল ওর ভেতর, আর আমি সঙ্গে সঙ্গে বুঝে গেলাম, ও টিকে যাবে।’ তারপরও ১৬ কেজি ওজন কমানোর শর্তে ছবিটা পেয়েছিলেন আলিয়া।

default-image

কারিনার সঙ্গে তুলনা, পরিণীতির সঙ্গে প্রতিযোগিতা

 
এরপর বহুবার কারিনার সঙ্গে তুলনা হয়েছে আলিয়ার। সমসাময়িক পরিণীতি চোপড়াকে মিডিয়া বানিয়ে দিল আলিয়ার প্রধানতম প্রতিদ্বন্দ্বী। অথচ প্রতিষ্ঠা পাওয়ার জন্য পরিণীতি এখনো সংগ্রাম করছেন। আর আলিয়া এদিকে রীতিমতো রাজত্ব করছেন। এই মুহূর্তে দীপিকা পাড়ুকোনের পর সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক গোনা অভিনেত্রী আলিয়া।

default-image

তবে ছোটবেলাটা বিশেষ ভালো কাটেনি আলিয়ার। খেতে ভালোবাসতেন। তার প্রভাব পড়েছিল শরীরে। পড়াশোনায় বিশেষ ভালো ছিলেন না। তবে এক্সট্রা কারিকুলার অ্যাটিভিটিসে পাওয়া যেত তাঁকে। স্কুল–কলেজে তেমন বন্ধু ছিল না। বেশির ভাগ সময় একাই থাকতেন।

default-image

আলিয়া রাঁধেন, চুলও বাঁধেন


পূজা ভাট আর রাহুল ভাট আলিয়ার সৎবোন আর ভাই। তাঁর আরেকটা বড় বোন আছেন, শাহীন ভাট। পেশায় লেখক।

default-image

১৯৯৯ সালে ‘সংঘর্ষ’ সিনেমায় প্রথমবারের মতো বড় পর্দায় দেখা দিয়েছিলেন আলিয়া। প্রীতি জিনতা আর অক্ষয় কুমার অভিনীত সেই ছবিতে আলিয়া ছিলেন ছোটবেলার প্রীতি জিনতা! আলিয়া নাচ শিখেছেন শিয়ামাক ডাভার’স একাডেমি থেকে। আর গানের তালিম নিয়েছেন অন্য কোথা থেকে নয়, এ আর রহমানের গানের স্কুল থেকে। ‘হাইওয়ে’, ‘হাম্পটি শর্মা কি দুলহানিয়া’ সিনেমাগুলোতে আলিয়া অভিনয়ের পাশাপাশি প্লেব্যাকও করেছেন। শুধু তা–ই নয়, ছবি আঁকাতেও দারুণ পারদর্শী আলিয়া। তবে আলিয়া ছবি আঁকেন চারকোল দিয়ে।

default-image
আলিয়ার সকালটা শুরু হয় লেবুপানি আর গ্রিন টি দিয়ে। চিনিকে বিদায় বলেছেন জীবন থেকে। প্রিয় খাবারের মধ্যে রয়েছে পাস্তা, দোসা, পোহা, রাবড়ি, ভেজিটেবল বা এগ স্যান্ডউইচ, স্যুপ, ইডলি, সাম্বার আর ক্ষীর।

আলিয়ার ডাকনাম ‘আলু’


কেবল অভিনয় নয়, স্কুলে থাকতে সবাই যাঁকে ‘মোটু মোটু’ বলত, ডাকনাম দিয়েছিল ‘আলু’, সেই আলিয়াই এই মুহূর্তে ভারতের ফিটনেস আইকনদের মধ্যে অন্যতম। নিয়ম করে ইয়োগা করেন তিনি। ‘সূর্য নমস্কার’ দিয়ে শুরু হয় তাঁর দিন। আলিয়া ফল আর খুব সামান্য তেলে রান্না করা সবজি খান। সকালটা শুরু হয় লেবুপানি আর গ্রিন টি দিয়ে। চিনিকে বিদায় বলেছেন জীবন থেকে। প্রিয় খাবারের মধ্যে রয়েছে পাস্তা, দোসা, পোহা, রাবড়ি, ভেজিটেবল বা এগ স্যান্ডউইচ, স্যুপ, ইডলি, সাম্বার আর ক্ষীর।  

default-image

এভাবেই স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, পরিশ্রম আর সু–অভিনয় দিয়ে সফলতার পথে একের পর এক নিজের বিজয়কেতন ওড়াচ্ছেন তিনি। শিগগিরই তাঁকে দেখা যাবে সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াবাড়ি’ সিনেমায়। তা ছাড়া প্রেমিক রণবীর কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধে দেখা দেবেন ‘ব্রহ্মাস্ত্র’য়। শোনা যাচ্ছে, এ বছরই আলিয়ার রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস হতে চলেছে ‘বিবাহিত’। সব মিলিয়ে একটা দুর্দান্ত বছর পার করতে চলেছেন তিনি।

default-image
বিজ্ঞাপন
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন