ইতিমধ্যে সুশান্তকে নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে একাধিক বই। সেই সব বই সাড়া ফেলেছে বাজারে। পাবলিশার্স ও বুকসেলার্স গিল্ডের প্রেসিডেন্ট ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘লেখকেরাও লাইমলাইটে আসার জন্য বেছে নিয়েছেন সুশান্তের মৃত্যুর বিষয়টিকে। আর সেই সব বই সাড়াও ফেলছে পাঠক মহলে। কারণ সবাই একটা শকের মধ্যে আছে। তারা সুশান্তের মৃত্যুরহস্য নিয়ে মানুষ আরও জানতে চায়। এই সময়ে রাতারাতি সাড়া ফেলার জন্য এর চেয়ে ভালো টপিক আর হয় না। তাই সমসাময়িক লেখকেরাও সেটাকে টার্গেট করছেন, সফলও হচ্ছেন।’

ওদিকে বসে নেই পরিচালকেরাও। তাঁরাও ঝাঁপিয়ে পড়েছেন সুশান্তকে নিয়ে সিনেমা বানাতে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু ছবির নাম নিবন্ধন করা হয়েছে। কোটি কোটি টাকা ঢালা হয়েছে প্রি প্রোডাকশনে। সিনেমা নিয়ে তৈরি হয়েছে নানা জটিলতাও। শচীন তিউয়ারি নামের এক টিকটক তারকাকে সুশান্তের ছবির জন্য ঠিক করে অগ্রিম টাকাও দেওয়া হয়েছে। রোর ফিল্মসের ব্যানারে ছবিটি পরিচালনা করার কথা সনোজ মিশ্রর। আর ছবিটির প্রযোজক মারুত সিং। কিন্তু শচীন ইতিমধ্যে এই চুক্তি ভেঙে সুশান্তের ওপর নির্মিত আরেকটি ছবির জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। আগের চুক্তির অগ্রিম অর্থও ফেরত দেননি তিনি, এমন অভিযোগ পরিচালক ও প্রযোজকদের। ডেকান ক্রনিকলের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে জানতে তাঁকে ফোন করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।