default-image

সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার এক মাস পার হয়ে গেল। মুম্বাই পুলিশ শুরু থেকেই কোমর বেঁধে তদন্তে নেমেছিল, সুশান্তের আত্মহত্যার সঠিক কারণ খুঁজে বের করতে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত সুশান্তের আত্মহত্যাকে ঘিরে একরাশ ধোঁয়াশা। প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েনই কি সুশান্তের এই মর্মান্তিক পরিণতির কারণ? আবার এই প্রশ্ন ঘুরে ফিরছে বিটাউনের অলিগলিতে।

গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজ বাসায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছিলেন সুশান্ত। এখন প্রশ্ন, সুশান্তের জীবনে এমন কী ঘটল, যার জন্য তিনি এ নির্মম সিদ্ধান্ত নিলেন। তাই ১১ থেকে ১৪ জুন—এ চার দিনে সুশান্তের খুঁটিনাটি সব বিষয় খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা। জানা গেছে, পুলিশ সুশান্তের রাঁধুনি নীরজকে আবার ডেকে পাঠিয়েছিল। ছয় ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল তারা। ১৪ জুন, অর্থাৎ সুশান্তের আত্মহত্যার দিনের বিস্তারিত সব তথ্য পুলিশ চেয়েছেন নীরজের থেকে। ওই দিন সুশান্ত ঠিক কী কী খেয়েছিলেন, কী কী করেছিলেন, তাঁর মানসিক অবস্থা কেমন ছিল; তা আবার খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

সুশান্তের বোন মিতুকেও আবার জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল মুম্বাই পুলিশ। মিতুর থেকে তারা জানতে চেয়েছিল যে মৃত্যুর আগের তিন মাস সুশান্তের জীবনে কী চলছিল। সুশান্তের জীবনে রিয়ার কতখানি প্রভাব, তা মিতুর থেকে খতিয়ে দেখতে চেয়েছে মুম্বাই পুলিশ। সুশান্ত ও রিয়া একসঙ্গে থাকার সময় তাঁদের মধ্যে কী ধরনের সমস্যা ছিল, তা–ও ভাবাচ্ছে পুলিশকে।

default-image

সুশান্তের আত্মহত্যার কারণ হিসেবে অনেকে বলিউডের কিছু প্রভাবশালী মানুষকে দায়ী করেছিলেন। তাই পুলিশ নানা দৃষ্টিকোণ থেকে তদন্ত করেছিল। সঞ্জয় লীলা বানসালি, শেখর কাপুর, শানু শর্মাসহ বলিউডের অনেক ব্যক্তিত্বকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে তারা। সুশান্তের বন্ধুবান্ধব ও টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির অনেকের বয়ান রেকর্ড করেছে পুলিশ। এমনকি সালমান খানের সাবেক ম্যানেজার রেশমা শেঠির বয়ানও নিয়েছে তদন্তকারীরা। রেশমা অক্ষয় কুমার, আলিয়া ভাট, ক্যাটরিনা কাইফসহ বলিউডের একাধিক প্রথম সারির তারকাদের বিজ্ঞাপন বিভাগের দেখাশোনা করেন। রেশমা নিজেও একটি ট্যালেন্ট হান্ট সংস্থার কর্ণধার। তাই পুলিশ রেশমার সাহায্যে বলিউডের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি ও কলহ খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু তারা রেশমার থেকে সুশান্তের আত্মহত্যার সঙ্গে জড়িত কোনো তথ্য পায়নি। এমনকি জোর গুঞ্জন ছিল যে বলিউড সুপারস্টার সালমান খানকেও জিজ্ঞাসাবাদ করবে বান্দ্রা পুলিশ। তবে এ ব্যাপারে এখনো সঠিক খবর পাওয়া যায়নি।

সুশান্তের ব্যক্তিগত জীবনকে আবার ভালো করে অনুসন্ধান করতে চায় পুলিশ। তাই এখন পুলিশ আবার রিয়ার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক খতিয়ে দেখতে চলেছে। জানা গেছে, পুলিশ সুশান্তের কল রেকর্ড থেকে কিছু তথ্য পেয়েছে, যা কেসটি তদন্ত করতে তাদের সাহায্য করবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0