সুশান্তের মৃত্যু তদন্তে বেরিয়ে যায় তারকাদের মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি।
সুশান্তের মৃত্যু তদন্তে বেরিয়ে যায় তারকাদের মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি।কোলাজ
১৪ জুন থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর। এই চার মাসে ভারতের মূলধারার মিডিয়ায় বলিউড নিয়ে যত খবর ছাপা হয়েছে, তার প্রায় ৭৫ শতাংশ প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে সুশান্ত সিং রাজপুতকেন্দ্রিক। অর্থাৎ প্রতি চারটি খবরের তিনটিই ছিল কোনো না কোনোভাবে সুশান্তকে জুড়ে। ‘ডেকান ক্রনিকল’, ‘বলিউড হাঙ্গামা’, ‘ইকোনমিক টাইমস’, ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’সহ অসংখ্য ভারতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে ইঙ্গিত দিয়েছে, ‘ব্র্যান্ড ভ্যালু’ হারাচ্ছে বলিউড।

তরুণ বলিউড তারকার আত্মহত্যা
মেধাবী অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার ঘটনা বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো আঘাত হেনেছে বলিউডে। নজর টেনে নিয়ে গেছে বলিউডের বেশ কিছু অন্ধকার দিকে। কেঁচো খুঁড়তে গিয়ে বেরিয়ে এসেছে সাপ। মাদক কেলেঙ্কারি, স্বজনপ্রীতি (নেপোটিজম), যৌন হয়রানিসহ একের পর এক মারাত্মক সব অভিযোগের বিষাক্ত ছোবলে নীল হয়েছে বলিউড। এসবের মাঝে মাঝেই টুইটারে কথার বোমা ফেলে পরিস্থিতি আরও নাগালের বাইরে নিয়ে গেছেন কঙ্গনা রনৌত। এই সবকিছুর সঙ্গে যে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে আছে ভারতের মূলধারার রাজনীতি, তা আর বুঝতে বাকি নেই কারও।

default-image
বিজ্ঞাপন

মাদক কেলেঙ্কারি নিয়ে কাদা–ছোড়াছুড়ি
সুশান্তের অপমৃত্যু যে বলিউডকে নাড়িয়ে দিয়েছে, তা আর বলতে! মাদক কেলেঙ্কারিতে নাম এসেছে প্রয়াত সুশান্ত ও তাঁর প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর। জেরা করা হয়েছে দীপিকা পাড়ুকোন, সারা আলী খান, শ্রদ্ধা কাপুর ও রাকুল প্রীত সিংকে। তাঁরা প্রত্যেকেই মাদক লেনদেন–সংক্রান্ত একটা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের সদস্য ছিলেন। দীপিকা ছিলেন সেই গ্রুপের অ্যাডমিন। ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) তালিকায় আরও নাম আছে হৃতিক রোশন, রণবীর সিং, শহীদ কাপুর আর অর্জুন রামপালেরও। করণ জোহরের নাম তালিকায় না এলেও নানা প্রসঙ্গে উঠে এসেছেন তিনি। শুধু অনলাইনেই নয়, বলিউডের সঙ্গে মাদকসংশ্লিষ্টতা নিয়ে তর্ক হয়েছে সংসদেও।

default-image

বলিউডে যৌন হয়রানির অভিযোগ
আদিত্য পাঞ্চোলি, মধুর ভান্ডারকর থেকে শুরু করে নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী, নানা পাটেকর, দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়, আনু মালিকসহ বলিউডের অসংখ্য ব্যক্তির বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণের অভিযোগ এসেছে। এই তালিকার সর্বশেষ সংযোজন পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ। যদিও অনুরাগের বিরুদ্ধে অভিযোগ নাকচ হয়ে গেছে। এরই মধ্যে বলিউডের গুণী পরিচালক অনুভব সিনহা ঘোষণা দিয়ে ছেড়েছেন বলিউড। তিনি বলেছেন, এ রকম নোংরা জায়গায় তিনি কাজ করতে রাজি নন।

বিজ্ঞাপন

স্বজনপ্রীতি ছড়িয়েছে ডালপালা
বলিউডের নামের সঙ্গে জুড়ে বসা সবচেয়ে পুরোনো আর প্রতিষ্ঠিত অভিযোগের নাম ‘স্বজনপ্রীতি’। সেই অভিযোগের তিরে বারবার বিদ্ধ হয়েছেন করণ জোহর, আলিয়া ভাট, সোনম কাপুর, সোনাক্ষী সিনহা, সারা আলী খান, অনন্যা পান্ডেসহ অনেকে। টিকতে না পেরে টুইটার থেকে বিদায় নিয়েছেন সোনাক্ষী। ইনস্টাগ্রামে মন্তব্যের ঘরে তালা লাগিয়েছেন সোনম। আর ফলোয়ার হারিয়েছেন আলিয়া। আলিয়ার বেশ কিছু ব্র্যান্ডের চুক্তিও হাতছাড়া হয়ে গেছে। একটি কোম্পানির গণসংযোগ কর্মকর্তা ভারতীয় গণমাধ্যম ‘ডেকান ক্রনিকল’কে বলেছেন, ‘একজন তারকাকে নিয়ে যখন অনেক বেশি নেতিবাচকতা ছড়ায়, তখন পণ্যের প্রতিনিধি হিসেবে তাঁর গ্রহণযোগ্যতা হারায়। তাই তারকার “ব্র্যান্ড ভ্যালু” খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

default-image

মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রের দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা সব মিলিয়ে খানিকটা হলেও নড়বড়ে হয়েছে। এমনিতেই করোনা তছনছ করে দিয়েছে বলিউডকে। আর সুশান্তের অপমৃত্যুর ঘটনা যেন কফিনে ঠুকে দিয়েছে শেষ পেরেক। এর মধ্যে জয়া বচ্চন সংসদে বলিউডের ইমেজ রক্ষার চেষ্টা করায় আরও ঘোলা হয়েছে পরিস্থিতি। সবকিছু মিলিয়ে আবার নতুন করে পুরোনো স্রোত ফিরিয়ে আনতে বেগ পেতে হবে বটে। সিনেমা হল গতিশীল করাও একটা বড় চ্যালেঞ্জ। এখনো অতটা স্বাভাবিক হয়নি শুটিং। তবে সব সংকট কাটিয়ে পুরোনো গতিতে বলিউডকে দেখতে এখনো আশাবাদী বলিউড ভক্তরা।

মন্তব্য পড়ুন 0