default-image

ক্যারিয়ারের একেবারে শুরু থেকেই নিজের শরীর নিয়ে কত যে কটু কথা শুনতে হয়েছে সোনাক্ষী সিনহার, তার ইয়ত্তা নেই। শুরুতে সব সমালোচনা ইতিবাচকভাবেই নিয়েছেন এই দাবাংকন্যা। তবে একসময়ে ধৈর্যের বাঁধও ভেঙেছে। সমালোচনাকারীদের একহাত নিতেও সময় লাগেনি ৩৩ বছর বয়সী এই বলিউড তারকার।

৫ ফুট ৬ ইঞ্চি উচ্চতার এই ‘লুটেরা’ তারকার বর্তমান ওজন ৭০ কেজি। কিন্তু বলিউডে পা রাখার আগে সোনাক্ষীর ওজন ছিল ৯৮ কেজি। ৩০ কেজি ওজন ঝরিয়ে তবেই সালমান খানের নায়িকা হয়েছিলেন সোনাক্ষী। আর তারকা হওয়ার জন্য কমবেশি মূল্য তো দিতেই হয়। হুড়মুড় করে চারদিকে সমালোচনার রোল উঠল। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সে কথাই মনে করিয়ে দিলেন নেপোটিজমের তোড়ে টুইটার থেকে বিদায় নেওয়া এই তারকা। বললেন, ‘আমি সব সময়ই মোটা বাচ্চা ছিলাম। অতিরিক্ত ওজন নিয়ে জন্মেছিলাম। তাই অতীতের কোনো ছবিতেই আমাকে ফিট দেখাবে না। যখন স্কুলে পড়ি, তখন আমার ওজন ছিল ৯৫ কেজি। আমি বড় হয়েছি “বুলিং”, “বডি শেমিং”–এর শিকার হয়ে। খুব কম বন্ধুই আমাকে আমার নিজের নামে ডেকেছে। সব সময় মোটি, মোটু, হাতি, ফ্যাটার—এগুলোই ছিল আমার নাম। কিন্তু আমি সব সময় বিশ্বাস করেছি, আমি কেবল আমার ওজন আর আকৃতি নই। আমি এর বাইরে অনেক কিছু!’

default-image

সোনাক্ষী আরও বলেন, ‘যখন মোটা ছিলাম, তখন লোকে যা ইচ্ছা তাই বলেছে। এরপর ৩০ কেজি ওজন ঝরালাম। ফিট হলাম। বলিউডে এলাম। সিনেমা হিটও করল। তখনো বেশির ভাগ লোক আমার মেধা, অভিনয় নিয়ে কথা বলেনি। কথা বলেছে কেবল ওজন নিয়ে। আমি বিশ্রী, আমি হাতি, আমি বেঢপ! আমি আমার ঘাম ঝরানো পরিশ্রমের কথা বলার চেষ্টা করেছি। তবু কারও আমার চেষ্টা, মেধা চোখে পড়েনি। আর কত!’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0