default-image

কিং খানের প্রসঙ্গে এই বলিউড অভিনেত্রী তাঁর কৈশোরের দিনগুলোতে হারিয়ে গিয়ে বলেন, ‘শাহরুখ এমন একজন, যাঁকে আমি সবচেয়ে বেশি সম্মান করি। তিনি আমাকে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত করেন। আমার মনে আছে যে “কুছ কুছ হোতা হ্যায়” ছবিটি যখন মুক্তি পায়, তখন আমি স্কুলে পড়ি। ছবিটি দেখার পর আমার স্কুলের সামনের এক দোকান থেকে “ফ্রেন্ডশিপ ব্যান্ড” কিনেছিলাম। “কুছ কুছ হোতা হ্যায়” ছবি থেকে ফ্রেন্ডশিপ ব্যান্ড খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। আর সেই ব্যান্ডটা আমি এক বছরের মতো পরেছিলাম। আমি সত্যি সত্যি শাহরুখের সঙ্গে একটি ছবি করতে চাই৷ আর সেই ছবির গানে তিনি তাঁর বিশেষ আন্দাজে দুই হাত প্রসারিত করবেন। আর আমি বুকে মাথা রাখব।’

default-image

ছোটবেলা থেকে সিনেমার পোকা কৃতি। কলেজ পালিয়ে অনেক ছবি দেখতেন এই বলিউড নায়িকা। তবে শুধু কৃতি নন, তাঁর পরিবারের সবাই সিনেমা দেখতে দারুণ পছন্দ করেন। গত বছর লকডাউনে বেঙ্গালুরুতে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন তিনি। আর তখন পরিবারের সবার সঙ্গে বসে জমিয়ে সিনেমা দেখেছেন এই বলিউড তারকা। কৃতি এ প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আমাদের পরিবার রোববার নিয়ম করে সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখত। তাই লকডাউনের সময় বাড়িতে সিনেমা হলের আবহ সৃষ্টি করতে বাবা প্রজেক্টর আর বড় একটি স্ক্রিন নিয়ে এসেছিলেন।

তিনি সিনেমা হলের অভিজ্ঞতা বাড়িতে দিতে চেয়েছিলেন। বাড়ির ছাদে প্রজেক্টের আর স্ক্রিন লাগিয়ে সিনেমা হলের মতো পরিবেশ তৈরি করেছিলেন বাবা। রাতের বেলায় আমরা সবাই মজা করে সিনেমা দেখতাম। এই কটা দিন আমি আমার মা-বাবা আর ভাইবোনেদের সঙ্গে মূল্যবান সময় কাটিয়েছি। সারা বিশ্বে কী ঘটছে, তা নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা থাকত না।’
কৃতিকে শেষ পর্দায় দেখা গেছে ‘চৌদা ফেরে’ ছবিতে। এই ছবিতে তাঁর বিপরীতে ছিলেন বিক্রান্ত ম্যাসি।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন