ছোটবেলা থেকেই সিনেমাপাগল শ্রীনিধি। বিশেষ করে বলিউড ছবি দেখতে ভালোবাসেন এই দক্ষিণি নায়িকা। আর সে জন্য বাসায় কম ঝামেলা পোহাতে হয়নি তাঁকে। এক সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে কিছু কথা বলেছেন তিনি।

মুম্বাইয়ে জন্ম শ্রীনিধির। পাঁচ বছর বয়সে পরিবারের সঙ্গে ম্যাঙ্গালোরে চলে গিয়েছিলেন তিনি। বলিউড ছবি নিয়ে এই দক্ষিণি নারী বলেছেন, ‘আমার মনে আছে, মা–বাবার সঙ্গে আমার প্রবল অশান্তি হয়েছিল শাহরুখ খানের কুচ কুচ হোতা হ্যায় ছবিটি দেখা নিয়ে। কারণ, আমি তখন খুবই ছোট ছিলাম। ছোটবেলায় আমি প্রচুর হিন্দি ছবি দেখতাম। বলতে পারেন আমি হিন্দি সিনেমার পোকা ছিলাম। আমার মনে আছে, ম্যাঙ্গালোর থেকে মুম্বাইয়ে বাসে যাত্রার সময় আমি হিন্দি ছবি দেখতাম। এই ছবিগুলো দেখার সময় আমি মনে মনে নিজেকে পর্দায় দেখতে চাইতাম। ভাবতাম, আমিও একদিন বলিউডের নায়িকা হব।’ শ্রীনিধি আরও বলেছেন, ‘বলতে পারেন পর্দার শাহরুখ খান, কাজল, মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে আমার বড় হয়ে ওঠা। তবে এখনকার অভিনেতাদের মধ্যে দীপিকা পাড়ুকোন, আলিয়া ভাট, রণবীর কাপুর, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আমাকে অনুপ্রাণিত করেন।’

কেজিএফ ওয়ান ছবিতে শ্রীনিধির উপস্থিতিতে বেশিক্ষণের ছিল না। কেজিএফ টু-এর প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘এই ছবির প্রথম পর্বে দর্শক আমাকে রিনা দেশাই হিসেবে দেখেছেন। প্রথম পর্বে আমাকে দেখার পর এর দ্বিতীয় পর্বে আমার কাছে হয়তো দর্শকের প্রত্যাশা কম। আমি এটুকু বলতে পারি যে কেজিএফ টু-তে আমি চমক দেব। আমাকে দর্শক সারা ছবিতে দেখতে পাবেন। কারণ, ছবির গল্প আমার অভিনীত চরিত্র রিনাকে ঘিরে।’

ছয় বছর ধরে কেজিএফ-এর সঙ্গে ভ্রমণের প্রসঙ্গে শ্রীনিধি বলেছেন, ‘আমার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছে এ সিনেমা দিয়ে। তাই এই ছবির সঙ্গে আমার আবেগতাড়িত সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। এটা আমার আরেকটা পরিবারের মতো। ছবির শুটিংয়ের শেষ দিন আমরা সবাই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলাম। সবার খুব কষ্ট হচ্ছিল।’

প্রশান্ত নীল পরিচালিত কেজিএফ চ্যাপ্টার টু ১৪ এপ্রিল মুক্তি পাবে। এই পিরিয়ড অ্যাকশন ছবিতে যশ, শ্রীনিধি ছাড়াও সঞ্জয় দত্ত, রাভিনা ট্যান্ডন, প্রকাশ রাজ আছেন।