default-image

কুনাল খেমু এখন বাসায় ব্যস্ত সদ্যোজাত কন্যা ইনায়াকে নিয়ে আর বাইরে ব্যস্ত ‘গোলমাল অ্যাগেইন’ ছবির প্রচারে। এ রকমই এক প্রচারের সময় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন কুনাল। সদ্য বাবা হওয়ার অনুভূতির পাশাপাশি তিনি কথা বলেন বিভিন্ন প্রসঙ্গ নিয়ে।

ছোট্ট ইনায়াকে নিয়ে কুনাল বলেন, ‘অনেকেই আমার কাছে ইনায়াকে দেখার প্রথম অনুভূতির কথা জানতে চান। সত্যি আমি কিছুই বলতে পারি না। কারণ, ওই মুহূর্তে প্রচণ্ড আবেগের বশে একসঙ্গে নানা অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছিলাম। সেসবের কিছুই এখন আর মনে পড়ে না। আর ইনায়া আসার পর সোহার লাইফস্টাইল বদলে গেছে। এখন ওকে রাত জাগতে হয়। কিন্তু সোহা কোনো অভিযোগ ছাড়া হাসিমুখে রাতের পর রাত জাগছে। আমরা দুজনেই খুব উপভোগ করছি।’

ইনায়া নামটি কে রেখেছেন, তার জবাবে এই বলিউড তারকা বলেন, ‘আমার কাছে কিছু নামের ছোট একটা তালিকা ছিল। তার মধ্যে ইনায়া নামটিও ছিল। সবার এই নামটি খুব পছন্দ হয়। আর যেহেতু ইনায়া মহানবমীর দিন জন্মেছে, তাই ওর মধ্যনাম নবমী রাখা হয়েছে। আমরা বাসায় ওকে ইনি বলে ডাকি।’

সাত বছর পর ‘গোলমাল’ ছবির সেটে ফিরে কেমন লেগেছে? কুনাল প্রথম আলোকে বলেন, ‘রোহিতের সঙ্গে কাজ করতে দারুণ লাগে। অন্যান্য ছবির শুটিংয়ের সময় তারকারা সাধারণত যে যার ভ্যানে বিশ্রাম নেন। কিন্তু “গোলমাল” ছবির সেটে শুটিংয়ের পর আমরা চেয়ার নিয়ে গোল হয়ে বসে আড্ডা মারতাম। এর ফলে একে অপরের সঙ্গে বন্ডিং দারুণ হয়েছে। তাই একে অপরের সঙ্গে মারপিট, ধস্তাধস্তির দৃশ্যে অভিনয় করার কাজটা অনেক সহজ হয়ে গেছে।’

এ প্রসঙ্গে কুনাল আরও বলেন, ‘হায়দরাবাদে শুটিংয়ের সময় প্রকাশ রাজের বাড়ি থেকে দুর্দান্ত খাবার আসত। মুম্বাইয়ে শ্রোস তালপান্ডের বাসা থেকে বিকেলের খাবার আসত। থেপলা আর আচার। গত বছর “গোলমাল” ছবির শুটিংয়ের সময় মিঠুনদা সেটে নিজের হাতে রান্না করে খাইয়েছেন সবাইকে। এবার রোহিত তাঁর টিভির রিয়েলিটি শো “খতরোঁ কা খিলাড়ি”র জন্য কড়া ডায়েটে ছিলেন। আমি আর আরশাদ ছাড়া সবাই ডায়েটের মধ্যে। শুটিং শেষে আমরা অভিনয়শিল্পীরা ছাড়াও ক্রু মেম্বাররা মিলে ভলিবল খেলতাম।’

বলিউড তারকা টাবুর সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে কুনাল বলেন, ‘আমি টাবুর বড় ভক্ত। ওনাকে দেখে মনে হতে পারে, তিনি গম্ভীর প্রকৃতির। কিন্তু তিনি দারুণ মানুষ। খুব মজা করে টাবুর সঙ্গে কাজ করেছি।’

শিশুশিল্পী হিসেবে কুনাল অজয় দেবগন ও আমির খানের সঙ্গে কাজ করেছেন। ‘জখম’ ছবিতে অজয়ের ছোটবেলার চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। আর ‘হাম হ্যায় রহি প্যার কে’ ছবিতে কুনাল অভিনয় করেছেন আমিরের সঙ্গে। আজ অজয় তাঁর সহশিল্পী। এ প্রসঙ্গে কুনাল বলেন, ‘আমি সবচেয়ে অবাক হই আমার বয়স যখন আট ছিল, তখন এই দুজন তারকা ছিলেন। আজ আমার বয়স ৩৪, আজ তাঁরা মহাতারকা। অজয়কে ছোটবেলায় আঙ্কেল বলে ডাকতাম। “গোলমাল” ছবির সেটে যখন আবার অজয়ের সঙ্গে দেখা হলো, তখন ভেবে পাচ্ছিলাম না কী বলে ডাকব। তারপর “দাদা” বলে সম্বোধন করি। একইভাবে হতভম্ভ হই আমিরের সময়ও। “হাম হ্যায় রহি প্যার কে” ছবির সময় ওনাকে “আঙ্কেল” বলে ডাকতাম। বড় বয়সে যখন আমিরের সঙ্গে দেখা হলো, একই সমস্যা হয়। আমিরকে আঙ্কেল, না স্যার বলব? অবশেষে “আমির স্যার” বলে ডাকতে শুরু করি।’

রোহিত শেঠি প্রযোজিত ও পরিচালিত ‘গোলমাল অ্যাগেইন’ ছবিটি ২০ অক্টোবর মুক্তি পাবে। ‘গোলমাল’ সিরিজের চতুর্থ ছবিতে কমেডির পাশাপাশি ভুতের দাপটও দেখা যাবে। রোহিতের এই ছবিতে কুনালকে ‘লক্ষ্মণ’-এর চরিত্রে দেখা যাবে। ‘গোলামাল অ্যাগেইন’ ছবির তারকারা হলেন অজয় দেবগন, আরশাদ ওয়ারসি, শ্রেয়াস তালপাড়ে, কুনাল খেমু, তুষার কাপুর, টাবু, পরিণীতি চোপড়া, জনি লিভার, মনোজ তিওয়ারি, প্রকাশ রাজ ও সঞ্জয় মিশ্র।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0