default-image

হেডমাস্টার করণ জোহরের স্কুলের দ্বিতীয় দফার সব কার্যক্রম শেষ। এবার তাঁর প্রধান শিক্ষার্থীরা হলেন টাইগার শ্রফ, তারা সুতারিয়া এবং অনন্যা পাণ্ডে। আজকের দিনটি এই স্কুলের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার জন্যই বেশ টেনশনের। আজ শুক্রবার বেরোবে পরীক্ষার ফল। হ্যাঁ, আজ ১০ মে মুক্তি পেয়েছে করণ জোহরের ধর্মা প্রোডাকশন প্রযোজিত ও পুনিত মালহোত্রা পরিচালিত ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার টু’ ছবিটি। ২০১২ সালে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ দিয়ে বলিউডে অভিষেক ঘটেছিল আলিয়া ভাট নামে এক তারকার। তিনি এখন বলিউডের সবচেয়ে ব্যস্ত ও গুণী তারকাদের মধ্যে একজন।

কথা হচ্ছে এই স্কুলেরই একজন ‘স্টার কিড’ ছাত্রী অনন্যা পাণ্ডেকে নিয়ে। তাঁর বাবা বলিউডের প্রতিষ্ঠিত অভিনেতা চাংকি পাণ্ডে এবং ‘দ্বিতীয় বাবা’ বলিউডের বাদশাহ শাহরুখ খান। এই প্রজন্মের যাঁরা বলিউডে পা রেখেছেন বা পা রাখবেন, সবাই মোটামুটি তারকার সন্তান হওয়ায় সবার মধ্যে আগে থেকেই জানাশোনা বা বন্ধুত্ব রয়েছে। যেমন বন্ধুত্ব রয়েছে সারা আলী খান আর জাহ্নবী কাপুরের। তেমনই বন্ধুত্ব আছে অনন্যা পাণ্ডে, শানায়া আর সুহানার। শানায়া বা সুহানাকে না চিনলেও তাঁদের বাবা–মাকে সবাই চেনেন। শানায়া সঞ্জয় কাপুর ও মাহিপ কাপুরের মেয়ে। আর শাহরুখ খান ও গৌরী খানের মেয়ে সুহানা। শানায়া আর সুহানারও অবিসংবাদী লক্ষ্য বলিউড।

default-image

অনন্যা পাণ্ডেকে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার টু’ ছবির প্রচারণার জন্য অনেক সাক্ষাৎকার দিতে হচ্ছে, বলতে হচ্ছে অনেক কথা। কথায় কথায় বের হয়ে এসেছে, শুধু সুহানা নয়, শাহরুখ খানের বড় ছেলে আরিয়ান খানের সঙ্গেও বন্ধুত্ব রয়েছে অনন্যা পাণ্ডের। শুধু তা-ই না, ডেকান ক্রনিকলকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘প্রথমে আরিয়ানের সঙ্গেই আমার বন্ধুত্ব ছিল। তারপর যখন সুহানার জন্ম হয়, তখন সুহানার সঙ্গেও বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। আর আমরা যখন বড় হলাম, ধীরে ধীরে আমাদের বন্ধুত্ব আরও গভীর হয়। আমি আর সুহানা টিচার টিচার খেলতাম। মাঝেমধ্যে আমি আমার মায়ের অভিনয় করতাম আর সুহানা হতো গৌরী আন্টি।’

অনন্যা, শানায়া আর সুহানার চার্লি’স অ্যাঞ্জেল নামে একটা গ্রুপ ছিল। সেই গ্রুপে তাঁরা বিভিন্ন লিংক শেয়ার করতেন। তবে অনন্যার প্রথম ছবির কথা ট্রেলার মুক্তির পরই তাঁদের জানিয়েছে। সুহানা তখন একটুও সময় নষ্ট না করে ইউটিউবে ছবির ট্রেলার দেখে সুহানাকে অভিনন্দন জানান। গ্রুপের নাম নিয়ে প্রশ্ন করা হলে অনন্যা জানান, ‘আমরা সিনেমার পোকা ছিলাম। তিন বন্ধুর সিনেমা “চার্লি’স অ্যাঞ্জেল” (২০০০) আমাদের তিন বন্ধুর দারুণ লেগেছিল। তাই আমরা ভেবেছিলাম, গ্রুপের নাম হিসেবে এটি যথাযথ।’

default-image

অভিনয়ে নাম লেখানোর আগে শাহরুখ খানের ‘রইস’ সিনেমার সেটে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন অনন্যা পাণ্ডে। শাহরুখের প্রশংসা করে অনন্যা বলেন, ‘তিনি আমার দ্বিতীয় বাবার মতো। তাঁকে ক্যামেরার সামনে অভিনয় করতে দেখা আমার জন্য দারুণ অনুভূতি। তখন আমি শিখেছি, আপনি যেটা বলছেন, সেটা কথা না, সেটা সিনেমার সংলাপ। সেখানে আপনাকে বৈচিত্র্য ও গভীরতা আনতে হবে। প্রতিটি সংলাপ গুরুত্বপূর্ণ। আর সেটা যথাযথভাবে বলতে পারতে হবে।’

অনন্যা পাণ্ডে বলিউডে কত বড় তারকা হতে পারবেন বা আরেকজন ‘আলিয়া ভাট’ হতে পারবেন কি না, তা আগামী পাঁচ বছরের বলিউডের ক্যালেন্ডারই বলে দেবে। তবে ইনস্টাগ্রামে অনন্যা পাণ্ডে যে অনেক বড় তারকা, তা এখনই বলে দেওয়া যায়। বলিউডে পা রাখার আগে সেখানে তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা অর্ধকোটি ছাড়িয়ে গেছে। প্রথম ছবি ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার টু’ কেমন হলো, তা আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই জানা যাবে। তবে প্রথম পরীক্ষার ফল না দেখেই প্রযোজক ভূষণ কুমার দাস ও পরিচালক মুদাসসর আজিজ তাঁকে নিয়েছেন দ্বিতীয় ছবিতে। ‘পতি, পত্নী ঔর ও’ নামের এই ছবিতে আরও আছেন কার্তিক আরিয়ান ও ভূমি পেডেনেকার।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0