বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

‘তুমি আছ তুমি নেই’ নামের একটি সিনেমার প্রচারণা নিয়ে অভিনেত্রী দীঘির বিরুদ্ধে ‘মামলা’ করেছেন বলে জানিয়েছিলেন নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। ছবিটির ট্রেলার মুক্তির পর ট্রলের স্বীকার হন অভিনেত্রী দীঘি। পরে তাঁর মন্তব্যকে ঘিরে সমালোচনা বাড়তে থাকে। তখন পরিচালক ঝন্টু জানিয়েছিলেন, ওই সিনেমার গল্পকে সস্তা, দুর্বল নির্মাণ ও ট্রেলারকে খারাপ বলায় তাঁরা ব্যবসায়িকভাবে ক্ষতির মুখে পড়বেন। তখন নির্মাতা জানান, ক্ষতিপূরণের মামলা করেছেন। এই মামলা নিয়ে তুমুল আলোচনা হলেও পরে জানা যায়, গুজব ছিল। আদতে কোনো মামলা হয়নি।

default-image

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে মার্চে হঠাৎ করেই দীর্ঘদিন পর আলোচনায় আসেন মডেল ও অভিনেত্রী রোমানা ইসলাম স্বর্ণা। তাঁর নামে মামলা করা হয় মোহাম্মদপুর থানায়। অভিযোগ ছিল, সৌদিপ্রবাসী একজনের কাছ থেকে নানান কায়দায় ব্ল্যাকমেল করে প্রায় দেড় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। সেই মামলায় গত ১১ মার্চ সন্ধ্যায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হন স্বর্ণা। দীর্ঘদিন কারাভোগ করতে হয়েছিল এই অভিনেত্রীকে।

default-image

বছরের মাঝামাঝি সময়ে ‘হাই প্রেশার টু’ নাটককে ঘিরে মামলা করা হয় অভিনেতা মোশাররফ করিম, ফারুক আহমেদ, জামিল হোসেন ও নির্মাতা আদিবাসী মিজানের নামে। মানহানির এই মামলা নিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হয়েছিল সব শিল্পীকে। মামলায় উল্লেখ ছিল, আইন পেশাকে কটাক্ষ করা হয়েছে। মামলাটি প্রথম দিকে আলোচনার সৃষ্টি করলেও পরে সেভাবে আর এগোতে দেখা যায়নি।

default-image

‘সত্য ঘটনা’ নামের একটি নাটক ২৩ জুলাই একটি বেসরকারি চ্যানেলে প্রচারিত হয়। নাটকে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের বিষয়ে মিথ্যা ও ভুল তথ্য দেওয়ার অভিযোগ আনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কয়েকটি সংগঠন। তারা সংগঠন থেকে নাটকের অভিনয়শিল্পী আফরান নিশো, মের্‌জাবীন, নির্মাতাসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলার ঘোষণা দেন। নাটকের বক্তব্য ছিল, প্রতিবন্ধী সন্তান জন্ম দেওয়াকে কেন্দ্র করে মা-বাবার কান্নাকাটির মাধ্যমে ভীতিকর পারিবারিক ও সামাজিক চিত্র ফুটিয়ে তোলা। পরে শিল্পীরা বিবৃতি দিয়ে ক্ষমা চাইলে মামলা করা থেকে সরে আসে অভিযোগকারীরা।

default-image

৬. ঢালিউড চিত্রনায়িকা পরীমনির আটক বছরের অন্যতম সেরা আলোচিত ঘটনা। আগস্ট মাসের ৪ তারিখে হঠাৎ করেই ফেসবুক লাইভে এসে এই নায়িকা জানান, তাঁর বাসায় অভিযান চলছে। লাইভে সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়াতে আহ্বান করেন তিনি। সেদিনই র‍্যাব সদস্যরা পরীমনিকে বনানীর বাসা থেকে আটক করেন। পরের দিন তাঁর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। পরে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়। ২৬ দিন জেল খাটার পর জামিন পান পরীমনি। সেই মামলা এখনো শেষ হয়নি।

default-image

৭. ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির এক গ্রাহক ৪ ডিসেম্বর প্রতারণার মামলা করেন অভিনয়শিল্পী তাহসান রহমান খান, রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা ও শবনম ফারিয়ার নামে। এই ঘটনা প্রকাশ পায় ডিসেম্বরের ১০ তারিখ। তখন বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়, তাহসান, মিথিলা, ফারিয়া যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারেন। বছরের শেষে এই ঘটনা তুমুল আলোচনা তৈরি করে মিডিয়াসহ সব অঙ্গনে। শেষ পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার না হলেও আগাম জামিন নেন মিথিলা। তবে এই ঘটনায় সামাজিকভাবে হেয় হতে হয় এসব শিল্পীকে। তাঁদের পাশে দাঁড়ায় অভিনয়শিল্পী সংঘ।

default-image

একটি প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার হন আরজে নিরব। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কিউকমের হেড অব সেলস (কমিউনিকেশন অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন) হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন তিনি। কিউকম থেকে প্রতারণার অভিযোগে ৭ অক্টোবর রাতে এক ভুক্তভোগী তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় আরজে নিরবের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরদিন ভোররাতে আদাবর এলাকা থেকে আরজে নিরবকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাঁকে রিমান্ডেও নেওয়া হয়। ৮ ডিসেম্বর তিনি জামিন পান।

default-image

প্রায় দুই বছর আগে সংগীতশিল্পী মিলার বিরুদ্ধে অ্যাসিড হামলার অভিযোগে মামলা করেন তাঁর সাবেক স্বামী এস এম পারভেজ সানজারির বাবা এস এম নাসির উদ্দিন। সেই মামলায় আদালত তাঁকে চলতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে গ্রেপ্তারের আদেশ দেন। এই ঘটনায় ‘সংগীতশিল্পী মিলাকে খুঁজছে পল্লবী থানা-পুলিশের দুটি ইউনিট’ শিরোনামে একাধিক গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। গত নভেম্বর মাসে মামলাটির বিচারপ্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা ছিল।

default-image

তরুণ অভিনেতা তৌসিফ মাহবুবের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন শামসুন্নাহার কনা নামের এক গৃহিণী। গত জানুয়ারি মাসে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় তিনি একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। গৃহিণীর অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করেছেন তৌসিফ। অভিযোগের উপযুক্ত প্রমাণ দিতে না পারলে ওই গৃহিণীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করার আভাস দিয়েছেন তৌসিফ।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন