বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সেই পোস্টে অর্ষা লেখেন, ‘খুব সিনিয়র একজন পরিচালক, সবাই তাঁকে চেনেন। কিছুদিন আগে একটা সিনেমা করবেন বলে আমাকে নক করেন। তাঁর ক্যারেক্টারের জন্য আমাকেই লাগবে বলে জানান। আমি বললাম, হুট করে সিনেমার ডেট ম্যানেজ করা তো কঠিন। এরপর পরিচালক অনেক অনুরোধ করলে আমি রাজি হই। সব শিডিউল শাফল করি, তিন দিন পর আমাদের মিটিং হওয়ার কথা। আজ তিনি আমাকে বলেন, টেকনিক্যাল ইস্যুর কারণে কাজটা হচ্ছে না, ডেট ক্যানসেল করতে হচ্ছে। পরে ডেট মেলাতে পারলে তিনি আমাকে নক করবেন। এই মেসেজটি পড়ার আগেই আমি নিউজ দেখলাম যে আমার পরিচালক গতকাল একজন জনপ্রিয় নায়িকাকে লক করেছেন তাঁর সিনেমায়। ব্যাপারটা হাস্যকর হয়ে গেল না? আর শুটিং হবে জানুয়ারিতে। কারণ, এর আগে ওই নায়িকার ডেট ফাঁকা নেই। কাজ না হতে পারে, কিন্তু মিথ্যা আর অসততা দিয়ে আপনি বেশি দূর যেতে পারবেন না, তবুও শুভকামনা আপনার অসততা আর প্রথম সিনেমার জন্য।’

এ প্রসঙ্গে বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করা হলে অর্ষা বলেন, ‘কিছুদিন আগে তিনি আমার সঙ্গে একটি সিনেমার বিষয়ে কথা বলেন। অক্টোবরের শেষের দিকে ছয় দিনের জন্য ডেট চান। আমি এখন দুটি বড় প্রজেক্টে যুক্ত আছি। এই মুহূর্তে হুট করে সময় বের করা আমার জন্য খুব কঠিন হয়ে যাচ্ছিল। তিনি অনেক অনুরোধ করার পর আমি আট দিনের ডেট ম্যানেজ করি। সেটা তাঁকে জানানোর পর তিনি আমার সঙ্গে দু–তিন দিনের মধ্যে আলোচনায় বসবেন বলে জানান। এর মধ্যে তিনি আমাকে কিছুই জানাননি। কিন্তু আজ গণমাধ্যমে নিউজ দেখে জানতে পারি, সেই সিনেমায় পরীমনি চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন গতকাল। এরপর আমি পরিচালককে মেসেজ দিতে গিয়ে দেখি তিনি আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে আমাকে মেসেজ দিয়ে জানিয়েছেন যে কাজটি হচ্ছে না। এটা কোনো প্রফেশনালিজম হলো? আমার সঙ্গে কাজ না–ই হতে পারে কিন্তু আমাকে তো জানানো হয়নি সেটা।’

default-image

অর্ষাকে ছবি থেকে বাদ দেওয়া হচ্ছে, এটা তাঁকে না জানিয়ে অন্য নায়িকাকে নেওয়ার কারণ কী? জানতে চাইলে অরণ্য আনোয়ার বলেন, ‘অর্ষা ছবি বাবদ তাঁর সম্মানীর পুরো টাকাটি অগ্রিম চেয়েছেন। এতে আমি স্তম্ভিত হয়ে গেছি। এই ইন্ডাস্ট্রিতে এভাবে আমাকে কেউ কোনো দিন বলেননি। এর অর্থ অর্ষা আমাকে অবিশ্বাস করছেন। সম্মানীর টাকা সব সময় আমরা শুটিংয়ের পরে দিয়ে থাকি।’

নব্বইয়ের দশকে টেলিভিশন সিরিজ ‘নুরুল হুদা’ পরিচালনা করে আলোচনায় আসেন অরণ্য আনোয়ার। ‘নুরুল হুদা একদা ভালোবেসেছিল’, ‘অতঃপর নুরুল হুদা’, ‘আমাদের নুরুল হুদা’ তাঁকে খ্যাতি এনে দেয়। পরে বহু একক ও ধারাবাহিক নাটক বানিয়েছেন এই নির্মাতা। এবারই প্রথম সিনেমা নির্মাণ করতে যাচ্ছেন অরণ্য আনোয়ার। আর তাঁর প্রথম সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন পরীমনি।

অর্ষাকে শেষ দেখা গেছে ‘নেটওয়ার্কের বাইরে’ ছবিতে। শিগগিরই তাঁকে দেখা যাবে ‘দ্য ব্রোকার’ ওয়েব সিরিজে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন