বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

মহামারির জন্য দুই বছর পর পুরোনো চেহারায় ফিরছে সিডনি চলচ্চিত্র উৎসব। আগামী ৮ থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে এ উৎসব। আয়োজকদের আমন্ত্রণে প্রযোজক সারা আফরিনসহ উৎসবে যোগ দেবেন পরিচালক কামার আহমাদ সাইমন। পৃথিবীর ঐতিহ্যবাহী থিয়েটারগুলোর একটি সিডনির স্টেট থিয়েটার। আর এখানেই ১৪ জুন বেলা তিনটায় প্রথম দেখানো হবে ‘অন্যদিন...’। এরপর ১৮ তারিখ বেলা একটায় ইভেন্ট সিনেমাসে দেখানো হবে ছবিটি।
‘অন্যদিন...’ ছবির নির্মাতা কামার আহমাদ তাঁর প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন, ‘শুনতে কি পাও!’ যাঁরা দেখেছেন, তাঁরা জানেন এটা ফিকশন আর নন-ফিকশন ঘরানার ছবি। সেই অর্থে ‘অন্যদিন...’ একটা পুরোপুরি হাইব্রিড ছবি। ভ্যারাইটির মার্তা বালাগার প্রশ্নের জবাবে বলেছিলাম এটা শতভাগ ফিকশন এবং শতভাগ নন-ফিকশন।

২০১৯ সালের নভেম্বরে আন্তর্জাতিক ডকুমেন্টারি চলচ্চিত্র উৎসব আমস্টারডামে (ইডফা) আমন্ত্রিত হয়েছিল ‘অন্যদিন...’। আর এটিই ইডফায় আমন্ত্রিত প্রথম বাংলাদেশের ছবি। তখন আমস্টারডামের তুসিনস্কি থিয়েটারে বিশ্ব অভিষেক হয়েছিল ছবিটির। ইডফার ওয়েবসাইটে তখন ‘অন্যদিন...’কে বর্ণনা করা হয়েছিল ‘ক্যালাইডোস্কোপিক ও ফিলোসফিক্যাল’।
এরপর চলতি বছর মার্চে নিউয়র্কে অবস্থিত মিউজিয়াম অব মুভিং ইমেজ বা মমির ফার্স্ট লুক উৎসবে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের ছবি হিসেবে আমন্ত্রিত হয়েছিল ‘অন্যদিন...’। এই সময় বিশ্বব্যাপী আলোচিত মাত্র ১৮টি ফিচারের মধ্যে নির্বাচিত হয়ে ‘অন্যদিন...’। ছবিটি প্রদর্শিত হয়েছিল মমির রেডস্টোন থিয়েটারে। মমির ওয়েবসাইটে ‘অন্যদিন...’–এর সেগমেন্টকে বর্ণনা করা হয়েছিল ‘আর্টিস্টিক মাস্টারপিস’ হিসেবে।

স্ক্রিন ডেইলি ছবিটির রিভিউতে লিখেছে ‘সম্মোহনী’ আর ভ্যারাইটি লিখেছে ‘কৌতুকপূর্ণ কিন্তু বিবেক নাড়া দেওয়া ছবি’। ২০১৭ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসবের সিনফন্দেশিওনে এক্সক্লুসিভ আমন্ত্রণ পেয়েছিল ‘অন্যদিন...’। লোকার্নো চলচ্চিত্র উৎসবের ওপেন ডোর্স বিভাগে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার এবং আর্তে আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছিল ছবিটি। এর জন্য প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের কোনো নির্মাতা হিসেবে কামারকে পিয়াতজা গ্রান্দায় সম্মাননা দেওয়া হয়েছিল।
বাংলাদেশ, ফ্রান্স ও নরওয়ের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে ‘অন্যদিন...’। প্রযোজক সারা আফরিন জানিয়েছেন, শিগগিরই ছবিটি সেন্সরে জমার পরিকল্পনা রয়েছে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন