মুঠোফোনে সিয়াম বলেন, ‘এ ধরনের অভিজ্ঞতা আমার আগে ছিল না। সুন্দর একটা সময় কাটছে আমার। পুরো বিষয়টি নিয়ে পরিবারের সবাই খুব খুশি। তবে এ সময়টা আমার কাছে একটু কঠিন মনে হচ্ছে। কারণ, ছবির প্রমোশন করছি, পাশাপাশি বাচ্চাকে সময় দিচ্ছি। চেষ্টা করছি সিনেমাটিকে দর্শকের কাছে নিয়ে যেতে। দর্শকেরা হলে ছবিটি দেখে যেন আমাদের ফিডব্যাক দেন।’

শান–এর সঙ্গে বিদ্রোহী ও গলুই নামে ঢালিউডে রয়েছে আরও দুটি ছবি, যে দুটির নায়ক শাকিব খান। এটা কি সিয়ামের জন্য বাড়তি চাপ? সিয়াম বলেন, ‘এর আগে ২০১৮ সালের ঈদেও এ রকম পরিস্থিতির মধ্যেই আমার প্রথম ছবি পোড়ামন টু মুক্তি পেয়েছিল, সমস্যা হয়নি। এবারও তাই চাপ মনে হচ্ছে না। আমাদের টিমের পছন্দের সিনেমা শান। আশা করছি, দর্শকেরও পছন্দ হবে।’ নিজের ছবি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে শাকিব খানের ছবি দুটির জন্যও শুভকামনা জানালেন সিয়াম। বললেন, ‘প্রত্যাশা রাখি, তিনটি ছবিই দর্শকেরা হলে গিয়ে দেখবেন, ভালো–মন্দ আলোচনা করবেন, সেটাই হবে আমাদের সার্থকতা।’

default-image

একদিকে বাবা হওয়ার আনন্দ, অন্যদিকে ঈদে সিনেমা মুক্তির। এ প্রসঙ্গে সিয়াম বলেন, ‘ডেলিভারি ডেট অনুযায়ী ঈদের সময়টা হাসপাতালেই থাকতে হতো। আমি আর অবন্তী বলাবলি করছিলাম, আমাদের সন্তান যদি আমাদের সঙ্গেই ঈদ করতে পারত, ভালো হতো। সেটাই হলো। আমাদের দুই পরিবারের জন্য এবারের ঈদটা স্পেশাল হবে। আমার শান ছবির টিমের জন্যও স্পেশাল হবে। আমাদের টিমের মেম্বারের সংখ্যাও বেড়ে গেল।’

ঈদের দিন দর্শকের সঙ্গে বসে সিনেমা দেখার আগ্রহের কথা জানালেন সিয়াম। বললেন, ‘দুটি কারণে ঈদের দিন প্রেক্ষাগৃহে যাব। প্রথমত, দর্শকের রিঅ্যাকশন দেখব। দ্বিতীয়ত, দর্শকদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করব, তাদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করব।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন