শুটিং স্থগিত রয়েছে বেশ কিছু চলচ্চিত্রের
শুটিং স্থগিত রয়েছে বেশ কিছু চলচ্চিত্রেরকোলাজ

চলছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। প্রথম ঢেউয়ের চেয়ে এবার সংক্রমণ বেশি তীব্র। এর প্রভাব পড়ছে ঢালিউডে। শুটিং স্থগিত রয়েছে বেশ কিছু চলচ্চিত্রের।  
কোনো সিনেমার শুটিং হয়েছে মাত্র চার দিন, কোনোটির দুই সপ্তাহ। কোনো পরিচালক সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েও শুটিং করতে পারেননি। কারণ, করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেওয়া হয়েছে লকডাউন। শুটিংয়ের অনুমতি আছে। তবে নিরাপত্তার জন্য নির্মাতারা নিজেরাই শুটিং স্থগিত রেখেছেন। এই সময়ে ছবির অন্য কাজে মনোযোগ দিয়েছেন তাঁরা।

default-image

‘অমানুষ’ নামে নতুন সিনেমার শুটিং করছিলেন পরিচালক অনন্য মামুন। ঢাকায় চার দিনের কাজ হয়েছে। ৪ এপ্রিল থেকে পুরো ইউনিট নিয়ে পরিচালকের যাওয়ার কথা বান্দরবানে। সেখানে টানা ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত ছবির শুটিং শিডিউল নেওয়া ছিল। কিন্তু করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় লকডাউন ঘোষণা করা হলে পরিচালক-প্রযোজকও ছবির কাজ পিছিয়ে দেন। ১২ এপ্রিল থেকে নতুন শিডিউল ঠিক করে রেখেছেন।

বিজ্ঞাপন

মামুন বলেন, ‘সরকার লকডাউন দিলেও শুটিং বন্ধের ব্যাপারে কোনো নির্দেশনা আসেনি। আমাদের মনে হয়েছে, ছবির শুটিংয়ে অনেক লোকের অংশগ্রহণ থাকে। এতে সংক্রমণ আরও বেশি হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। তাই সবার সুরক্ষার কথা ভেবে শুটিং পিছিয়েছি।’ ছবিটিতে অভিনয় করছেন নিরব, মিথিলাসহ অনেকেই।

default-image

পাবনায় ‘অন্তরাত্মা’ ছবির টানা এক মাসের শুটিং শেষে ঢাকায় ফিরেছেন শাকিব খান। চলতি সপ্তাহে নতুন ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা। চিত্রনায়িকা বুবলীও তাঁর ছবি ও বিজ্ঞাপনচিত্রের শুটিং শেষে পুরোপুরি প্রস্তুত। পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী সব ঠিক থাকলে এক বছর পর ক্যামেরার সামনে দেখা যেত ঢালিউডের আলোচিত এই জুটির। তা আর হলো না। দুজনের একসঙ্গে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে লকডাউন শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’-এর পরিচালক তপু খান এমনটি জানান। প্রথমবারের মতো সিনেমায় হাত দিয়ে শুরুতেই ধাক্বা খেলেন তিনি।

তপু বলেন, ‘এই সময়ে আমাদের হাতে কিছুই নেই। সব প্রস্তুতি ছিল। এত সব গুণী শিল্পী নিয়ে কাজ, তাঁদের সবার স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যাপারটাও দেখতে হবে। তা ছাড়া শাকিব খান শুটিংয়ে থাকলে অনেক ভক্ত দেখতে আসেন। তাতে সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা আছে। লকডাউনে এমনটা করতে চাইনি।’

default-image

‘বুবুজান’ ছবির ১৭ দিনের শুটিং শেষ করে রেখেছিলেন শামীম আহমেদ। আরও ১২ দিনের শুটিং বাকি আছে। এ মাসের প্রথম সপ্তাহে শুটিং করার পরিকল্পনা করেছিলেন পরিচালক। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত পাল্টেছেন তিনি। শুটিং স্থগিত করেছেন। তবে লকডাউনের সময়টা কাজে লাগাতে ভারতে অন্য ছবির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ এগিয়ে নিচ্ছেন। কলকাতা থেকে গতকাল বিকেলে এই পরিচালক বলেন, ‘১১ এপ্রিল ঢাকায় ফিরব। এরপর নতুন করে প্ল্যান করব। আসলে পরিস্থিতি কী হচ্ছে, কেউই বুঝতে পারছি না। ঈদে ছবি মুক্তি নিয়ে আমরা দোদুল্যমান আছি। নিজেদের সুরক্ষার পাশাপাশি সবার সুরক্ষার কথা ভেবে সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। কয়েকটা দিন পিছিয়ে পড়ব, এই আরকি!’

বিজ্ঞাপন

মাহিয়া মাহি ও সাইমন সাদিক অভিনীত ‘গ্যাংস্টার’ ছবির কাজ করছেন পরিচালক শাহীন সুমন। পরিচালক সমিতির নির্বাচনের কারণে কয়েক দিন শুটিং বন্ধ ছিল। নির্বাচনে জয়ী হয়ে তিনি পরিচালক সমিতির মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচন শেষে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে শুটিংয়ে নামার কথা। কিন্তু লকডাউনের ঘোষণায় স্থগিত করা হয়েছে শুটিং।

default-image

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাপ্পী চৌধুরী অভিনীত অপূর্ব রানার ‘যন্ত্রণা’সহ ১২টি ছবির শুটিং পিছিয়ে গেছে। পরিস্থিতি দেখে তারপরই এসব ছবির শুটিং নিয়ে ভাববেন পরিচালক ও প্রযোজকেরা। তাঁদের মতে, শিল্পী ও কলাকুশলীদের সুরক্ষার ব্যাপারটা সবকিছুর আগে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন