বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে রুবেল বলেন, ‘এখন একটু রেসপন্স করায় সবাই কিছুটা হলেও দুশ্চিন্তামুক্ত হয়েছি। কিন্তু সংকট কেটে গেছে বলা যাবে না। চিন্তার কারণ, ভাইয়ার ৭০ ভাগ ফুসফুস আক্রান্ত। তবে চিকিৎসকেরা বলেছেন, বিভিন্ন রোগী ৮২–৮৩ ভাগ ফুসফুসে আক্রান্ত হলেও সারভাইভ করেছেন। আল্লাহ চাইলে শিগগির সুস্থ হয়ে ভাইয়া আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন। তিনি আমাদের মাঝে ফিরবেন।’

বেশ কয়েক দিন ধরে জ্বর ও কাশিতে ভুগছিলেন সোহেল রানা। হাসপাতালে পরীক্ষা করিয়ে জানতে পারেন, তিনি করোনা পজিটিভ। ২৫ ডিসেম্বর রাতে তাঁকে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তখন থেকে চিকিৎসকদের সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে ছিলেন। অক্সিজেন স্যাচুরেশন কম থাকায় সেই সময় কিছুটা কষ্টের কথা জানা গিয়েছিল। তিন দিনের মধ্যে সোহেল রানার শারীরিক অবস্থা গুরুতর হলে ২৯ ডিসেম্বর আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। দেশের মানুষের কাছে দোয়া চেয়ে রুবেল বলেন, ‘যাঁরা ভাইয়াকে চেনেন, ভালোবাসেন, তাঁরা দোয়া করবেন। আল্লাহ যেন তাঁকে মাফ করে দেন। তিনি যেন সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসেন। ভাইয়ার অন্য কোনো শারীরিক জটিলতা ছিল না। তাঁর সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া চাই।’

default-image

চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত ‘ওরা ১১ জন’ নামের মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্রের প্রযোজক হিসেবে চলচ্চিত্রজগতে প্রবেশ করেন মাসুদ পারভেজ। অভিনেতা হিসেবে যিনি সোহেল রানা নামে পরিচিত। তিনি অভিনেতা ও প্রযোজক হিসেবে দীর্ঘ ক্যারিয়ারে বহু কালজয়ী সিনেমা উপহার দিয়েছেন। তিনবার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। ২০১৯ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা পান সোহেল রানা।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন