বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সিনেম্যাকিং আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের পরিচালক মনজুরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সেমিনারে মুখ্য আলোচক হিসেবে সত্যজিৎ রায়ের জীবনী নিয়ে আলোচনা করেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক ওহিদুজ্জামান ডায়মন্ড। স্মরণসভায় তিনি বলেন, ‘সব সময় সত্যজিৎ রায় আমাদের মাঝে প্রাসঙ্গিক হয়ে থাকবেন। সেই “পথের পাঁচালী” থেকে শুরু করে তিনি যত সিনেমা বানিয়েছেন, সেখানে আজকের মতো উন্নত প্রযুক্তি ছিল না। কিন্তু তাঁর সিনেমাগুলো এখনো সুন্দর জীবনবোধের কথা বলে।’ তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন সময় সত্যজিৎ অর্থনৈতিক সীমাবদ্ধতার মধ্যে সিনেমা বানিয়েছেন। অনেক সময় সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পাননি। তারপরও সিনেমার জন্য সকল বাধা তিনি অতিক্রম করে গেছেন।
সেমিনারে উঠে আসে সত্যজিৎ রায়ের চলচ্চিত্রের বিভিন্ন দিক ও পূর্ণাঙ্গ জীবনী।

default-image

আলোচনায় বক্তারা বলেন, সত্যজিৎ রায় যে মাপের চলচ্চিত্র পরিচালক, সেই অনুযায়ী তাঁকে নিয়ে কোনো কাজ হয়নি। তাঁকে আবিষ্কার করার অনেক কিছুই বাকি রয়েছে। তিনি শুধু এশিয়া নন, বিশ্বের সিনেমাপ্রেমীদের মাঝে সব সময় থাকবেন। সাংবাদিক আলী নিয়ামতের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী মনোরঞ্জন ঘোষাল। প্রবন্ধ পাঠ করেন চঞ্চল সৈকত এবং সাংবাদিক মো. জহিরুল ইসলাম। আলোচনা করেন গবেষক আবু সাইদ, চলচ্চিত্র নির্মাতা অপূর্ব রায়, অভিনয়শিল্পী আনন্দ খালেদ প্রমুখ।

default-image

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে চলচ্চিত্র উৎসবের ইতি টানা হবে। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। এবারের উৎসবে বাংলাদেশসহ ১২১টি দেশের ৬০০ চলচ্চিত্র মনোনীত হয়েছে। জুরিদের রায়ে পুরস্কার প্রদান করা হবে। উৎসবের সমাপনী দিনে অঞ্জন আইচ পরিচালিত ‘আগামীকাল’ চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার হবে। দেশের সুবর্ণজয়ন্তী স্মরণে এবারের উৎসবটি উৎসর্গ করা হয়েছে বাংলাদেশের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন