‘তিনি আর নেই শোনামাত্রই ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে’

বিজ্ঞাপন

অভিনেতা সাদেক বাচ্চু আজ সোমবার দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে রাজধানীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেছেন। তাঁর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন ঢালিউল সুপারস্টার শাকিব খান। এই নায়ক তাঁর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লেখেন, ‘সাদেক বাচ্চু ভাই শুধু আমার সহশিল্পী ছিলেন না, তিনি ছিলেন চলচ্চিত্রে আমার অভিভাবকদের একজন। সংস্কৃতির সব মাধ্যমে সফল হওয়া এ মানুষটিকে আজ হারালাম।’

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
‘সহশিল্পী কিংবা অভিভাবকত্বের বাইরেও সাদেক বাচ্চু ভাই আমার প্রতি এক অদৃশ্য মায়া দেখাতেন। তিনি আর নেই শোনামাত্রই আমার ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে।’
শাকিব খান

এই সময় প্রয়াত এই খলনায়কের স্মৃতিচারণা প্রসঙ্গে শাকিব খান লেখেন, তিনি সব সময় তাঁকে আগলে রেখে ভালোর পথে এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিতেন। মানসিক সাপোর্ট দিয়ে সাহস জোগাতেন। নিয়মিত তাঁদের যোগাযোগ হতো। ঢালিউডের এই নায়ক আরও বলেন, ‘সহশিল্পী কিংবা অভিভাবকত্বের বাইরেও সাদেক বাচ্চু ভাই আমার প্রতি এক অদৃশ্য মায়া দেখাতেন। তিনি আর নেই শোনামাত্রই আমার ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে।’

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চলচ্চিত্রে একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে অনেকের সঙ্গেই ভালো সম্পর্ক হয়েছে শাকিব খানের। কিন্ত বিভিন্ন কারণে আত্মিক সম্পর্ক অনেকের সঙ্গেই হয় না। সে ক্ষেত্রে এই নায়কের কাছে সাদেক বাচ্চু ছিল অন্য রকম উদাহরণ। প্রায় ২০ বছর আগে তাঁদের একসঙ্গে পথচলা শুরু।

এই প্রসঙ্গে কিং খান বলেন, ‘এতগুলো বছর ধরে কাজ করে অনেকের সঙ্গে পরিচয় ও সুসম্পর্ক হলেও সবাই আপন হতে পারেনি। হাতে গোনা কিছু মানুষ হৃদয়ে ঠাঁই পেয়েছেন। তাঁদেরই একজন ছিলেন সাদেক বাচ্চু ভাই। তাঁর সঙ্গে মন খুলে কথা বলতাম। সবকিছু শেয়ার করতাম। তিনি আমার ভালো কাজে যেমন উৎসাহ দিতেন, তেমনি মন্দ শুনলে খুব কষ্ট পেতেন।’ এই সময় তিনি আরও বলেন, ‘সাদেক বাচ্চুর মতো অভিনেতাকে হারিয়ে মনে হচ্ছে, আমি আমার কোনো এক স্বজনকে হারালাম।’

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জীবনের শেষ বছরগুলোয় অভিনয়ে অনিয়মিত ছিলেন সাদেক বাচ্চু। তাঁকে নতুন নাটক বা চলচ্চিত্রে কম দেখা যেত। এর আগে পাঁচ দশকের ক্যারিয়ারে মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন ও সিনেমায় ছিল তাঁর পদচারণ। নব্বইয়ের দশকে পরিচালক এহতেশামের ‘চাঁদনী’ ছবিতে অভিনয় করে পরিচিতি পান তিনি। রেডিও বা টেলিভিশনের আগে তিনি অভিনয় শুরু করেন মঞ্চে। তাঁর নাট্যদলের নাম মতিঝিল থিয়েটার। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি দলটির সভাপতি ছিলেন। চলতি বছর বইমেলার মুক্তমঞ্চে নাটক নিয়ে ওঠে তাঁদের দলটি।

default-image

মহিলা সমিতির মঞ্চে এক নাটকে সাদেক বাচ্চুর অভিনয় দেখে তাঁকে বিটিভিতে ডেকে নেন প্রযোজক আবদুল্লাহ ইউসুফ ইমাম। ১৯৭৪ সালে বিটিভিতে তিনি অভিনয় করেন ‘প্রথম অঙ্গীকার’ নাটকে। তাঁর অভিনীত নাটকের সংখ্যা হাজারের বেশি। প্রথম অভিনীত সিনেমা শহীদুল আমিন পরিচালিত ‘রামের সুমতি’।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন