বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

১ নভেম্বর পরিচালক সমিতি থেকে বহিষ্কারের চিঠি হাতে পান নোমান রবিন। মনঃক্ষুণ্ন হয়ে নোমান বলেন, ‘আমি সংগঠনের পরিপন্থী কোনো কাজে কখনোই যুক্ত ছিলাম না। আমি কোথাও সমিতির কথা উল্লেখ করিনি বা ছোট করিনি। কিন্তু ঘটনাগুলো নিজেদের গায়ে নিয়ে সমিতি আমাকে অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করল। সমিতির পক্ষ থেকে আমি নির্বাচিত হয়ে কিছু পরিবর্তনের কথা বলতাম। বলেছিলাম আবদুল্লাহ মোহম্মদ সাদকে অভিনন্দন জানাতে। এ ছাড়া সংগঠন ঢেলে সাজানোসহ ভালো কাজের কথা বলায় আমাকে হয়রানি করতে সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছে। তারা আমার সঙ্গে অন্যায় করেছে।’

default-image

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে সোহানুর রহমান সোহান বলেন, ‘তিনি সংগঠনের পরিপন্থী কাজ করেছিলেন। আমাদের সংগঠনের নিয়ম অনুযায়ী তাঁকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।’ কী ধরনের কার্যকলাপ নোমান করেছিলেন জানতে চাইলে সোহানুর রহমান আর এই বিষয়ে মন্তব্য করেননি। এই সময় তিনি যোগ করেন, ‘বহিষ্কারকে কেন্দ্র করে গতকাল রাতে ফেসবুকে লাইভে আমাদের নিয়ে অনেক কিছুই বলেছেন তিনি। এসব নিয়ে কথা বলতে চাই না। গঠনতন্ত্রকে অবমাননা করলে যে কারও বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা নিতে পারি।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন