‘বিশ্বসুন্দরী’একটি দৃশ্যে সিয়াম ও পরীমনি
‘বিশ্বসুন্দরী’একটি দৃশ্যে সিয়াম ও পরীমনিছবি: সান মিউজিক এন্ড মোশন পিকচার্স লিমিটেডের সৌজন্যে
গত শুক্রবার দেশের প্রায় ২৫টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে সিয়াম আহমেদ অভিনীত ‘বিশ্বসুন্দরী’ ছবিটি। তবে সিনেমাটি এখনো দেখা হয়নি সিয়ামের। কেননা, এই মুহূর্তে তিনি দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ‘দামাল’ নামের আরেকটি ছবির শুটিং করছেন। নতুন স্বাভাবিকে ছবি মুক্তি ও শুটিং নিয়ে প্রথম আলোর সঙ্গে কথা বললেন তিনি।
বিজ্ঞাপন

প্রায় দুই বছর আপনার অভিনীত সিনেমা মুক্তি পেল। এই সময়ে আপনি দর্শকের পাশে নেই...

খারাপ লাগছে। অনেক দিন পর প্রেক্ষাগৃহে আমার নতুন ছবি মুক্তি পেয়েছে। কিন্তু ছবিটির প্রথম দিনের শো দেখা হলো না। ‘দামাল’ নামের আরেকটি ছবির শুটিংয়ে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে আছি। তবে ছবি নিয়ে দর্শকের প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি প্রতিনিয়ত।

default-image

দর্শকের প্রতিক্রিয়া কেমন?

ইতিবাচক সাড়া বেশি। তবে আরও কিছু দিন গেলে আসল অবস্থা বুঝতে পারব। স্টার সিনেপ্লেক্সের বসুন্ধরা শাখার দুটি মিলনায়তনে ছয়টি শো ছিল, দর্শক বাড়ার কারণে প্রথম দিনেই একটি শো বাড়ানো হয়েছে।

ছবিটি নিয়ে আপনার প্রত্যাশা কী?

আমি সব ধরনের দর্শকের জন্য অভিনয় করি। আমার আগের সিনেমাগুলো থেকে এটি একটু অন্য ধরনের সিনেমা। ছবির গল্প মাথার ওপর দিয়ে যাবে—এমনটি নয়। কিন্তু নারী ও মায়েদের ভালো লাগবে। আমি চাই, মায়েরা ছবিটি দেখুক। সবাই তাঁর মাকে নিয়ে সিনেমাটি দেখবেন। আশার কথা হচ্ছে, প্রথম দিন সন্ধ্যা পর্যন্ত শুনেছি হলে নারী দর্শক বেশি ছিলেন। তাই ছবিটি নিয়ে প্রত্যশা বেড়ে গেছে।

default-image


কিন্তু বেশ কিছুদিন আগে ছবিটি নিয়ে হতাশার কথা বলেছিলেন...

হতাশ ছিলাম অন্য কারণে। ছবির ট্রেলার প্রকাশের আগে আমার দেখার সুযোগ হয়নি। ইউটিউবে প্রকাশিত হওয়ার পরে দেখেছি। ট্রেলারটির কোনো বিশেষত্ব চোখে পড়েনি। মান দেখে হতাশ হয়েছিলাম। এ কারণে সাড়া ফেলতে পারেনি ট্রেলারটি। অথচ ইউটিউবে সাড়া ফেলেছিল ছবির ‘তুই কি আমার হবি রে’ গানটি।

default-image

মুক্তির আগে ছবিটি নিয়ে খুব একটা প্রচারেও আপনি ছিলেন না...

টেলিভিশনে কিছুটা প্রচার করতে পেরেছি। অন্য ছবির শুটিংয়ের কারণে হলে হলে গিয়ে প্রচারণা করতে পারলাম না। অথচ এই কাজই আমার প্রিয়। হলে হলে যাব, দর্শকের সঙ্গে ছবিটি দেখব, সময় কাটাব, তাঁদের কাছ থেকে সরাসরি প্রতিক্রিয়া পাব। এটি খুব উপভোগ করি। আশা করছি, তিন চার দিনের মধ্যে শুটিং থেকে ফিরতে পারব। এরপর টানা কয়েক দিন হলে হলে সফর করব। দর্শকের সঙ্গে সময় কাটাব।

বিজ্ঞাপন

‘দামাল’ ছবির কাজ কেমন হচ্ছে?

এই ছবির প্রেক্ষাপট মুক্তিযুদ্ধ। পরিচালনা করছেন রায়হান রাফি। আমার বিপরীতে আছেন বিদ্যা সিনহা মিম। মুক্তিযুদ্ধের সময়ের সঙ্গে যোগসূত্র তৈরি করে বর্তমান সময়কেও দেখানো হয়েছে। প্রস্তুতি সেভাবেই নিয়েছি। প্রায় এক সপ্তাহ হলো আমার অংশের কাজ শুরু হয়েছে। আরও তিন-চার দিন এখানে শুটিং চলবে।
‘বিশ্বসুন্দরী’র পর ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ছবিতেও আপনার বিপরীতে পরীমনি।

default-image

সামনে জুটি হয়ে কাজের পরিকল্পনা আছে?

তা বলতে পারব না। দর্শকই ভালো বলবেন। তবে ‘বিশ্বসুন্দরী’ দর্শকের মধ্যে আলোচনা তৈরি করতে পারলে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ছবির এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ তৈরি হবে। তখন এই জুটিকে নিয়ে পরিচালকেরাও কাজ করতে চাইবেন, দর্শকও দেখতে চাইবেন।

নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়ার জায়গাটাও কি বাড়ছে?

‘বিশ্বসুন্দরী’ করতে গিয়ে পরীমনিকে যতটা চিনেছি, ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ করতে গিয়ে তাঁকে আরও বেশি চিনেছি। তাঁর মতো দিলখোলা মানুষ আশেপাশে কমই আছেন। তাঁর পাগলামিটা ভালো লাগে। এর জন্যই হয়তো তিনি পরীমনি। কাজ হোক বা না হোক, সব সময়ই শুভকামনা পরীমনির জন্য। বন্ধুমহলে তাঁর মতো একজন পাগলা বন্ধু দরকার আছে।

default-image
ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন