বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

১০ নভেম্বর কুমিল্লার ছেলে সনি পোদ্দারের সঙ্গে বিদ্যা সিনহা মিমের বাগদান হয়েছে। জীবনের নতুন একটি পর্বের সূচনা হতে যাচ্ছে, প্রথম দিনের শুটিংয়ে কেমন লাগছে? জানতে চাইলে শুটিং লোকেশনে থেকে মুঠোফোনে মিম বলেন, ‘আমার কাছে নিজেকে কিন্তু নতুন মনে হচ্ছে না। মনে হচ্ছে, আগের মিমই আছি। তবে বাগদানের পর মনে হচ্ছে একটু আরাম করে কাজ করছি। কারণ, বাগদান নিয়ে মাথায় একটা চাপ ছিল। এখন আর নেই। প্রায় এক মাস আগে থেকে বাগদানের সব প্রস্তুতি আমি নিজেই নিয়েছি।’

বাগদানের পর প্রথম শুটিং, হবু স্বামী খোঁজখবর নিয়েছেন? হাসতে হাসতে মিম বলেন, ‘আলাদা করে খোঁজ নেওয়ার তো কিছু নেই। সম্পর্কের দিনগুলোতে যেভাবে খোঁজখবর নিয়েছে, এখনো তাই নিচ্ছে। শুটিংয়ে থাকলে সাধারণত আমাকে ফোন দেয় না সনি। টেক্সট করে, কখন শুটিং শুরু হবে, কখন শেষ হবে, ঠিকমতো খেয়েছি কি না, এসব। শুটিংয়ে পৌঁছেছি কি না, জানতে আজ অবশ্য ফোন করেছিল। এরপর অনেকবার টেক্সট করেছে। সত্যি কথা কী, আমাদের কোনো পরিবর্তন নেই। আমরা আগের মতোই আছি।’

default-image

সিনেমা দুনিয়ায় নিজেকে জড়াতে চান না সনি। মিম জানালেন, ‘সনি আগেও আসতে চায়নি, এখনো আমার কোনো শুটিংয়ে আসতে চায় না। একবার তাকে বলেছিলাম, বিয়ের পর তো আমাদের দুজনকে বিভিন্ন টেলিভিশন অনুষ্ঠান বা পত্রিকায় ডাকবে, তখন তো যেতে হবে। এই কথায় সে বলেছে, “জীবনেও না”। আসলে মিডিয়ার কোনো কাজের সঙ্গেই সে জড়াতে চায় না।’ তবে তাঁর কাজের প্রতি সনির আন্তরিকতা আছে। তাঁর কাজকে উৎসাহ দিয়ে থাকে তাঁর হবু স্বামী।

default-image

এই অভিনেত্রী জানিয়েছেন ছবিতে তাঁর অংশের শুটিং প্রায় শেষ। আর দু-তিন দিন কাজ করলেই হয়ে যাবে। মিম বলেন, ‘ঠিকঠাক শুটিং করা গেলে আগামীকালই আমার কাজ শেষ হয়ে যেত। তবে বৃষ্টিতে শুটিং বাধা পড়েছে। হয়তো এ কারণে বাড়তি আরও এক দিন লাগতে পারে। কিন্তু আমার হাতে শিডিউল নেই। এক–দুই দিনের কাজ বাকি থাকলে ডিসেম্বরে করব।’ ছবিতে একজন সাইবার ক্রাইম ডাটা অ্যানালিস্টের চরিত্রে অভিনয় করছেন মিম। নাম নিশাত।

এ দিন ছবিতে তাঁর প্রথম দৃশ্যের শুটিং হয়েছে। সঙ্গে ছিলেন সিয়াম, সুনেরাহ্ বিনতে কামাল, এমবি এম সুমনসহ কয়েকজন, জানালেন মিম।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন