বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সাইমন তাঁর ফেসবুকে লিখেছেন, ‘পৃথিবীতে কোনো বাবাই খারাপ না। আর বাবার কাছে কোনো সন্তান খারাপ, সেটা চিন্তাতেও আসে না। একজন বাবার কাছে সবচেয়ে খারাপ সময়টা হলো, যখন তার সন্তান বিশাল বড় একটা দুঃসময় পার করে। শাহরুখ খান, শুধু ভারতবর্ষে নয়, সারা পৃথিবীজুড়ে আপনার যে সুনাম, আপনার যে মহত্ত্ব, যে খ্যাতি, যে মানবিক দিক, সেটা হয়তো দুই/চার/দশ জনের আছে। আপনার নিজের সংসারের ছবির ফ্রেম অসাধারণ, চমৎকার, ভালোবাসার। নিজের সন্তানের দুঃসময়ে আপনি যেভাবে ভেঙে পড়েছেন, এটা খুব স্বাভাবিক। তবে ভুলে গেলে চলবে না, রাতের আকাশ ভোরের অপেক্ষায়। সকল জটিলতা কাটিয়ে ছেলে ফিরে আসুক ঘরে, আনন্দে ভরে উঠুক ভুবন। নিজের মতো, নিজের ছেলের যত্ন নিন। ছেলের বন্ধুদের যত্ন নিন। শাসন, খেয়াল, আনন্দ আর ভালোবাসায় ভেসে যাক সব দুঃখস্মৃতি।’

default-image

এ বিষয়ে পরে প্রথম আলোর সঙ্গে কথা হয় সাইমনের, ‘আমার পছন্দের অভিনেতা শাহরুখ। বলা যায়, তাঁর কাজ দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছি। এর কারণ তিনি শূন্য থেকে শুরু করে একটু একটু করে তারকাখ্যাতি, সম্মান অর্জন করেছেন। তাঁর দীর্ঘ ক্যারিয়ারে এমন কোনো ঘটনা নেই, যা তাঁকে এভাবে ছোট করেছে। একজন সফল মানুষের জীবনটা সন্তানের জন্য থেমে গেছে। অনেকেই বলার চেষ্টা করছেন, শাহরুখ খান তাঁর সন্তানকে সময় দেননি, ঠিকমতো দেখা করতে পারেননি। ব্যস্ততার কারণে সেটা হতেও পারে। কিন্তু পৃথিবীতে কোনো বাবাই খারাপ নন। এমনকি বাবার কাছে কোনো সন্তান খারাপ, সেটা চিন্তাতেও আসে না।’

default-image

সাইমন আরও বলেন, ‘একজন বাবার কাছে সবচেয়ে বড় দুঃসময় সন্তানের বিপদ। সন্তানের জন্য শাহরুখ খারাপ সময় পার করছেন। শুটিং বন্ধ করেছেন। মানুষের নানান কথা শুনছেন। শাহরুখ খান, শুধু ভারতবর্ষে নয়, পৃথিবীজুড়ে তাঁর খ্যাতি। তার মানসিক দিকটাও আমাকে মুগ্ধ করে। কিন্তু সাম্প্রতিক ঘটনায় প্রিয় তারকার জন্য মানসিকভাবে কষ্ট পাচ্ছিলাম। আমিও একজন বাবা। সারা জীবন একজন শাহরুখ খান, তাঁর সন্তানের, তাঁর পরিবারের জন্য সবকিছু করেছেন। যে যা চেয়েছেন, তা–ই দিয়েছেন। সেই বাবাকে এখন শুনতে হচ্ছে, ছেলেকে কোনো সময় দেননি। বাবা ব্যস্ত থাকলেই কি ছেলে বিপথে যাবে?’

default-image

সাইমন সাদিক বর্তমানে ‘নরসুন্দরী’ সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন শামীম আহমেদ রনি। আগামী শুক্রবার তাঁর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। যে কারণে শুটিং বন্ধ। শনিবার আবার শুটিং শুরু হবে। সিনেমায় তাঁর সহ–অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি। ২০১২ সালে জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘জ্বী হুজুর’ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে পর্দায় অভিষেক হয় সাইমন সাদিকের। ২০১৩ সালে ‘পোড়ামন’ সিনেমায় তাঁর অভিনয় প্রশংসিত হয়। ‘জান্নাত’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য ২০১৮ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন