default-image

‘আলহামদুলিল্লাহ, আমাদের বিবাহিত জীবনের আট বছর পূর্ণ হলো। আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’ আজ মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এই স্ট্যাটাস দিয়েছেন অনন্ত জলিল। এর আগে দেওয়া আরেকটি স্ট্যাটাসে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের এই আলোচিত নায়ক ও প্রযোজক লিখেছেন, ‘আমার কাছে তুমি সবচেয়ে বড় উপহার। তোমাকে ভালোবাসি।’

স্ত্রী চিত্রনায়িকা বর্ষা আর দুই ছেলে আরিজ ইবনে জলিল ও আবরার ইবনে জলিলকে সঙ্গে নিয়ে অনন্ত জলিল এখন আছেন ইতালির রোমে। ২০১১ সালে বিয়ের পর প্রতিবছর বিবাহবার্ষিকীতে বর্ষার জন্য নতুন কিছু নিয়ে হাজির হন অনন্ত জলিল। এবার তাঁরা বেড়াতে গেছেন ইতালি। সেখান থেকেই বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে অনন্ত জলিল ফেসবুকে দুটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সঙ্গে সেখানে তোলা কয়েকটি ছবিও পোস্ট করেছেন।

default-image

এর আগে প্রথম আলোর সঙ্গে আলাপে বর্ষার সঙ্গে প্রেম আর বিয়ে নিয়ে অনন্ত জলিল বলেছেন, ‘আমাদের বিয়ে হয়েছে ২০১১ সালে। তবে আমাদের মধ্যে ভালোবাসার সম্পর্ক তৈরি হয় ২০০৮ সালে।’ তখন স্ত্রী বর্ষার উদ্দেশ্যে অনন্ত জলিল বলেছেন, ‘ভালোবাসি তোমাকে। ভালোবাসি শেষ পর্যন্ত।’ আর বর্ষা জানান, তিনিই প্রথম অনন্ত জলিলকে ভালোবাসার কথা বলেছিলেন। তবে সেদিন তিনি কী বলেছিলেন, তা বলতে চাননি।

বর্ষাকে বিয়ের পর নিজের অনেক কিছুই পাল্টে যায় অনন্ত জলিলের। বলেছেন, ‘অফিস থেকে এক সেকেন্ডের জন্য অন্য কোথাও যাই না। বর্ষার সঙ্গে যখন থেকে প্রেম শুরু করেছি, তখন থেকে অফিস থেকে সরাসরি ওর কাছে চলে আসি। একা কোথাও যাই না। দুজন দুজনের প্রতি দায়িত্বশীল। সামাজিকতা রক্ষার চেষ্টা করি। সবকিছু মিলেমিশে করি। এটাই আমাদের ভালোবাসার রসায়ন।’

default-image

জানালেন, বর্ষার রান্না করা খাবার খুব পছন্দ করেন অনন্ত জলিল।

অনন্ত জলিল আর বর্ষা একসঙ্গে অভিনয় করেছেন ‘খোঁজ দ্য সার্চ’ (২০১০), ‘হৃদয়ভাঙা ঢেউ’ (২০১১), ‘মোস্ট ওয়েলকাম’ (২০১২), ‘নিঃস্বার্থ ভালোবাসা’ (২০১৩) ও ‘মোস্ট ওয়েলকাম ২’ (২০১৪) ছবিতে। এখন তাঁর কাজ করছেন ‘দিন দ্য ডে’ ছবিতে। অভিনয়ের পাশাপাশি ইরানের সঙ্গে ছবিটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছেন অনন্ত জলিল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0