বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

“হঠাৎ বৃষ্টি”র পর “চুপি চুপি”। তৃতীয়টা ছিল “টক ঝাল মিষ্টি”। তিনটি সিনেমাতে আমার নাম ছিল অজিত আর প্রিয়াঙ্কার দীপা। তিনটি সিনেমা যদি ধারাবাহিকভাবে কেউ দেখেন, তাহলে অনেক মিল পাবেন। তিনটি সিনেমা দিয়ে আমাদের উৎসব করার প্ল্যান ছিল।

default-image

এরপর “হঠাৎ সেদিন” নামে একটি সিনেমায় আমি বাসুদার সঙ্গে প্রোডিউসার হয়েছি। তার পুরোনো হিন্দি সিনেমার গল্প নিয়ে করেছিলাম। ওই সিনেমায় আমি আর ঋদ্ধিমা সেন অভিনয় করেছি। বাংলাদেশে আমার প্রযোজনার প্রথম সিনেমা “এক কাপ চা”য়ের গল্প ছিল বাসু চ্যাটার্জির। আমার চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ারজুড়ে বাসু চ্যাটার্জি ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। এখনো আমার কাছে বাসুদার একটি গল্প আছে।’

default-image

ফেরদৌস আরও বলেন, ‘“বিয়ের ফাঁদে” নামে একটা সিনেমা করার কথা ছিল। শেষ কোভিডের আগেও আমার সঙ্গে যখন কথা হলো তখন বাসুদা বলেছে, সিনেমা বানাবে। আমি বলেছি, “তুমি তো ঠিকমতো দাঁড়াতে পারো না, কীভাবে সিনেমা বানাবে।” বাসুদা বলেছিল, “আমি বসে বসে ডিরেকশন দেব।” কিন্তু বাসুদা চলে যাওয়ার কারণে সেটা আর করা হয়নি। ভবিষ্যতে বাসুদার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সিনেমাটি বানানোর ইচ্ছে আছে।’

default-image

দেশের সীমানা পেরিয়ে ভিনদেশে নিজেদের দ্যুতি ছড়িয়েছেন বা ছড়াচ্ছেন বাংলাদেশের যেসব তারকা, তাঁদের নিয়েই প্রথম আলোর আয়োজন ‘বড় মঞ্চের তারকা’। হাতিল নিবেদিত এ অনুষ্ঠান প্রথম আলোর অনলাইন, ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেলে দেখা যাচ্ছে। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করছেন দিলারা হানিফ পূর্ণিমা।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন