তারকাবহুল ছবি হাতে থাকতেও ভালোবাসা দিবসে নেই নতুন কোনো সিনেমা, লোকসানের আশঙ্কায় প্রযোজকেরা ছবি মুক্তি দিচ্ছেন না
তারকাবহুল ছবি হাতে থাকতেও ভালোবাসা দিবসে নেই নতুন কোনো সিনেমা, লোকসানের আশঙ্কায় প্রযোজকেরা ছবি মুক্তি দিচ্ছেন নাকোলাজ:আমিনুল ইসলাম

ভালোবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে এ বছর সিনেমা হলে কোনো ছবি মুক্তি পাচ্ছে না। ফেব্রুয়ারি মাসে তিনটি ছবি মুক্তির কথা রয়েছে। সেসব ছবি ভালোবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে নয়। যদিও বিশেষ এই দিনকে কেন্দ্র করে তিনটি ছবি মুক্তির কথা ছিল।
কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে হাতে গোনা কয়েকটি সিনেমা হল খোলা। তাই লোকসানের আশঙ্কায় প্রযোজকেরা ছবি মুক্তি দিচ্ছেন না।

default-image

প্রতিবছর ভালোবাসা দিবসের ছবি নিয়ে সিনেমা হল ও সিনেপ্লেক্সের আলাদা আগ্রহ থাকে। বেশ আগেভাগেই এই দিনের ছবি নির্ধারিত হয়ে যায়। কিন্তু এবার কোনো ছবি নেই মুক্তির কাতারে। তাই ভালোবাসা দিবসে পুরোনো ছবিতেই ভরসা করছেন হলমালিকেরা। স্টার সিনেপ্লেক্স, আনন্দ ও যশোরের মণিহার সিনেমা হল–সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা এমনটাই জানান। মণিহার হলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জিয়াউল ইসলাম বলেন, ‘কোন ছবি মুক্তি পাবে, এটা দুই থেকে তিন মাস আগেই জানতে পারি। এবার এখনো কেউ ফোন দেয় নাই। নতুন ভালো কোনো ছবি মুক্তি না পেলে পুরোনো ছবিই ভরসা।’

বিজ্ঞাপন

বছরের প্রথম মাস জানুয়ারি কেটেছে নতুন ছবি ছাড়া। চলচ্চিত্রের দুই সংগঠন প্রযোজক ও প্রদর্শক সমিতি সূত্রে জানা গেছে, ফেব্রুয়ারি মাসে তিনটি ছবি মুক্তির জন্য আবেদন করা হয়েছে। ৫ ফেব্রুয়ারি ‘রংবাজি’, ১২ ফেব্রুয়ারি ‘নারী শক্তি’ এবং ১৯ ফেব্রুয়ারি ‘পাগলের মতো ভালোবাসি’ মুক্তি পাবে। ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’, ‘পাপ-পুণ্য’, ‘জ্বীন’, ‘নীল মুকুট’সহ ২০টির বেশি ছবি সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে। কিন্তু ছবিগুলোর মুক্তি নিয়ে কোনো ঘোষণা আসেনি। ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’, ‘নন্দিনী’, ‘পরাণ’, ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘মিশন এক্সট্রিম টু’, ‘বিদ্রোহী’, ‘হাওয়া’, ‘বিক্ষোভ’সহ বেশ কিছু ছবির শুটিং শেষ হয়েছে। ছবিগুলো সেন্সর বোর্ডে যাওয়ার অপেক্ষায়।

default-image

ভালোবাসা দিবসে ‘পরাণ’ ছবির মুক্তির আভাস দিয়েছিলেন নির্মাতা রায়হান রাফি। এই ছবিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম, শরীফুল রাজ, ইয়াশ রোহান প্রমুখ। রায়হান রাফি বলেন, ‘এখনো অনেক সিনেমা হল খোলেনি। কিছু হল খুললেও সেখানে দর্শক সেভাবে যাওয়া শুরু করেনি। করোনা নিয়ে দর্শকদের মধ্যে এখনো ভয় আছে। ছবির প্রচারও সেভাবে করতে পারছি না। সে কারণেই আমরা ছবি মুক্তি থেকে সরে এসেছি। আমাদের ছবিটি বাণিজ্যিক ঘরানার। সিনেমা হলের জন্যই বানানো। ওটিটিতে আমরা মুক্তি দেব না। সে জন্য হুট করেই ছবিটি মুক্তি দিয়ে লোকসানে পড়তে চাইছি না। আগামী পয়লা বৈশাখে ছবিটি মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা আছে।’

default-image

এ মাসেই মুক্তির কথা ছিল পূজা চেরি, রোশান ও সজল অভিনীত ‘জ্বীন’, অপু বিশ্বাস ও বাপ্পী চৌধুরী অভিনীত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ টু’ ছবি দুটির। জানা গেছে, পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করেই মুক্তি নিয়ে দোটানায় আছেন প্রযোজকেরা। জ্বীন ছবির পরিচালক নাদের চৌধুরী জানান, এখন টিকা এসেছে। পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হলে তাঁরা ছবির মুক্তি নিয়ে ভাববেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

মুক্তির জন্য কোনো নতুন ছবি না থাকায় এই উৎসব নিয়ে কোনো পরিকল্পনা নেই হলমালিকদের। স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ বিপণন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, ১৪ ফেব্রুয়ারি নিয়ে প্রতিবছর তাঁরা আলাদা পরিকল্পনা করেন। অনেকেই ছবি নিয়ে তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। একটি উৎসবমুখর পরিবেশ থাকে। তিনি বলেন, ‘প্রযোজকেরা আমাকে জানিয়েছেন, ছবি মুক্তি দিলে লোকসান হবে। এখনো দেশে হলে দর্শক যাওয়ার মতো পরিবেশ তৈরি হয়নি। সবাই ছবি মুক্তির জন্য ঈদকে টার্গেট করছেন। এই মুহূর্তে দিবসটি নিয়ে আমাদের কোনো পরিকল্পনা নেই।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন