বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে ছিল পরীমনিদের সংবাদ সম্মেলন। অনেক দিন পর এফডিসিতে একসঙ্গে দেখা গেল শাকিব খান ও বুবলীকে। শাকিব দুপুরের পর এলেও বুবলী এসেছিলেন সাতসকালে।

default-image

তবে তাঁদের যখন দেখা হলো, তখন রাত প্রায় ৯টা। ১১টা পর্যন্ত শুটিং করেন তাঁরা। গতকাল শনিবার থেকে এফডিসিতে শুরু হয় কাজী হায়াতের নতুন সিনেমা জয় বাংলার প্রথম ধাপের শুটিং। মুনতাসীর মামুনের কিশোর উপন্যাস জয় বাংলা অবলম্বনে নির্মাণাধীন এ ছবিতে অভিনয় করেছেন বাপ্পী ও জাহারা মিতু। গত শুক্রবার এফডিসির ৭ নম্বর ফ্লোরে তৈরি করা হয় সেট। পরিচালক জানান, গল্পের বাস্তবতায় ছবিতে কোনো শিল্পীকেই মেকআপ দেওয়া হচ্ছে না।
দীর্ঘদিন পর একত্রে তিনটি সিনেমার শুটিংয়ে যোগ দিয়েছেন মৌসুমী। এর মধ্যে দেড় সপ্তাহ সাভারের খতিব খামারবাড়িতে শুটিং করেন তিনি। গত শুক্রবার ফিরেছেন ঢাকায়। এক দিনের বিরতি শেষে আজ রোববার থেকে গাজীপুরের কালীগঞ্জের নাগরী ইউনিয়নে দেশান্তর ছবির শুটিং শুরু করবেন তিনি। পরিচালকের আশুতোষ সুজনের প্রথম ছবি হতে যাচ্ছে এটি। এতে মৌসুমীর বিপরীতে অভিনয় করবেন আহমেদ রুবেল।

মৌসুমী বলেন, ‘করোনার কারণে সিনেমার কাজে ফেরার সাহস পাচ্ছিলাম না। এখন প্রকোপ কমায় শুটিংয়ে ফিরতে পেরে ভালো লাগছে। যে বাড়িতে মাতৃত্ব ছবির শুটিং করেছিলাম, একই বাড়িতেই সোনার চর–এর কাজ করছি। তাই অনেক স্মৃতি চোখের সামনে ভেসে উঠছে বারবার। অন্যদিকে রেলস্টেশনে এসে জড়ো হওয়া কিছু ছিন্নমূল মানুষের গল্পের ছবির ভাঙন। এখানে ফেরিওয়ালার চরিত্রে অভিনয় করছি। আশা করছি, গল্প ও চরিত্র মিলিয়ে ছবি দুটি দর্শকের ভালো লাগবে।’

default-image

পাবনায় চলছে জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশীদের ছবি নূর–এর শুটিং। এই ছবিতে ঐশীর সহশিল্পী আরিফিন শুভ, পরিচালক রায়হান রাফী। জুন মাসেই নূর–এর শুটিং শুরু করার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। এ মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে পাবনায় শুরু হয়েছে এই ছবির শুটিং। টানা ২০ দিন শুটিংয়ের পর ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে বলে জানান ঐশী।

টাঙ্গাইলের মহেরা জমিদারবাড়িতে শুটিং শুরু করেছেন পরিচালক এস এ হক অলিক। গলুই নামের সেই ছবিতে অভিনয় করছেন পূজা চেরি, থাকবেন শাকিব খানও।

default-image

সুনামগঞ্জে হৃদিতার শুটিং শেষ করে এই শুটিংয়ে অংশ নেন পূজা। পরিচালক অলিক জানালেন, টাঙ্গাইলে শাকিব খান ও পূজা চেরির ছোটবেলার দৃশ্য ধারণ করা হচ্ছে। কাল দিনের বেলায় শুটিং শেষ করে পুরো ইউনিট রওনা দেবে জামালপুরে। আগামী মাসের পুরো সময়টা সেখানে শুটিং চলবে।
চলচ্চিত্রের কাজ পুরোদমে শুরু করে দিয়েছে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো। আশা, দীর্ঘদিনের স্থবিরতা ও ক্ষতি পুষিয়ে এগিয়ে যাবে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলো। একই সঙ্গে দীর্ঘ স্থবিরতা থেকে চলমান জীবনে ফেরাও এক আনন্দের ব্যাপার।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন