বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সম্প্রতি দুই ধাপে গানটির শুটিং শেষ হয়েছে। রাসেল বলেন, ‘প্রথম ধাপের কাজ হয়েছে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে। সমুদ্রের ধারে সেট ফেলে শুটিং করা হয়েছে। দ্বিতীয় ধাপে এফডিসিতে। প্রায় ১০০ নৃত্যশিল্পী অংশ নিয়েছিল গানটিতে।’ প্রথম এ ধরনের কাজ প্রসঙ্গে রাসেল বলেন, ‘সাধারণত মিউজিক ভিডিওর কাজ আমাদের এখানে এভাবে হয় না। বড় আয়োজনের কাজ, অনেকটা সিনেমার আদলে।’

‘মেনস ফেয়ার অ্যান্ড লাভলী-চ্যানেল আই হিরো-কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়ার পর রাসেল রানা চ্যানেল আইয়ের দু–একটি কাজ করেছিলেন। এরপর ‘মাসুদ রানা’ ছবিতে কাজ চূড়ান্ত হওয়ার পর গত দুই বছর অন্য কোনো কাজ করেননি। তিনি জানিয়েছিলেন, বড় পর্দায় অভিষেকের আগে কোনো কাজ করতে চান না। পুরো সময় ‘মাসুদ রানা’ ছবির জন্য প্রস্তুতি নিয়েছেন। গত বছর ‘মাসুদ রানা’ ছবির শুটিং শুরু হয়েছে। প্রায় ৯০ শতাংশ কাজ শেষ ছবির। এ ব্যাপারে রাসেল রানা জানান, সিনেমা শেষ করার আগে মিউজিক ভিডিও করার ইচ্ছা ছিল না তাঁর। তিনি বলেন, ‘আমি চেয়েছি আগে “মাসুদ রানা”সিনেমাটি শেষ করতে। এ জন্য প্রস্তাব থাকলেও গত দুই বছর আমি এসব কাজ করিনি। কিন্তু “মাসুদ রানা” ছবির পরিচালক সৈকত নাসির ভাই এমনভাবে ধরলেন, না করতে পারলাম।’

default-image

গানটিতে রাসেল রানার সঙ্গে মডেল হয়েছেন সোনিয়া। মিউজিক ভিডিওটি পবিত্র ঈদুল ফিতরে দেখা যাবে ইউটিউবে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন