বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

সায়মন বলেন, ‘আমি করোনাকে খুব একটা ভয় পাচ্ছি না। কিন্তু দুই ছেলে যখন দরজার পাশে এসে বাবা বাবা বলে কাঁদে, তখন নিজের কাছে খুবই কষ্ট লাগে। দুই ছেলে আমার সঙ্গেই সবচেয়ে বেশি সময় থাকত। সারাক্ষণ সন্তানদের কান্নাকাটি শুনে খুবই কষ্ট হচ্ছে। বাসায় থেকেও সন্তানদের কাছ থেকে দূরে থাকার কষ্টটা মানা যায় না।’

default-image

বেশ কিছুদিন ধরেই সায়মনের জ্বর। ভেবেছিলেন ঋতু পরিবর্তনের কারণে হতে পারে। জ্বর বোধ করার পর থেকেই সচেতন ছিলেন এই অভিনেতা। সবার সঙ্গে দূরত্ব বজায় রাখছিলেন। ৮ আগস্ট করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন। গতকাল রাতে জানতে পেরেছেন, তিনি করোনায় আক্রান্ত। সায়মন বলেন, ‘শরীরে জ্বর, প্রচণ্ড ব্যথা, দুর্বল, ডায়রিয়া। কিছুদিন আগে আমার মা করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, এখন সুস্থ আছেন। তখন মায়ের কাছে শুনতাম, সব খাবার একই রকম লাগে। মা খেতে চাইতেন না। আমার এখন মায়ের মতো অবস্থা। খাবারে স্বাদ, ঘ্রাণ কিছুই পাই না। কিছুই খেতে ইচ্ছে করে না।’

চিকিৎসকের পরামর্শে বাসাতেই করোনার চিকিৎসা নিচ্ছেন সায়মন। গতকাল থেকেই ছয় ধরনের ওষুধ তাঁকে সেবন করতে হচ্ছে। ‘ওষুধের পাশাপাশি ঘরোয়া চিকিৎসা নিচ্ছি। মাকে সেবা করতে গিয়ে করোনার ঘরোয়া চিকিৎসাগুলো সম্পর্কে আগে থেকেই ধারণা হয়েছিল। সেভাবেই নিয়মিত গরম পানির ভাপ নিচ্ছি। বারবার লবঙ্গ-এলাচ দিয়ে গরম পানি খাচ্ছি। অন্যান্য ভিটামিনসমৃদ্ধ খাবার আমাকে খেতে হচ্ছে। সবার কাছে দোয়া চাই। যেন দ্রুত সুস্থ হতে পারি,’ কথাগুলো বলেন সায়মন। তিনি কয়দিন আগেই করোনার টিকা নেন।

default-image
ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন