বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বঙ্গবন্ধুর মায়ের চরিত্রে দিলারা জামান ও বাবার চরিত্রে অভিনয় করছেন খায়রুল আলম সবুজ। দিলারা জামান জানালেন, তিন দফায় তাঁকে মুম্বাই যেতে হবে। প্রথমবার ২৭ জানুয়ারি গিয়ে কয়েক দিন শুটিং করে ঢাকায় ফিরবেন তিনি। ফেব্রুয়ারিতে আরও দুই দফা যেতে হবে তাঁকে। জ্যেষ্ঠ এই অভিনয়শিল্পী বলেন, ‘শ্যাম বেনেগালের সঙ্গে প্রথম দেখায় তিনি আমাকে বলেছিলেন, আপনি কিন্তু আমাদের সঙ্গে থাকছেন। এই কথা শোনার পর আমার এটাই মনে হয়েছে, এই সিনেমায় কাজ করা মানেই ইতিহাসের অংশ হওয়া। এই সুযোগ পেয়ে আমি খুবই সম্মানিত, আনন্দিত।’

default-image

শেখ মুজিবের বাবা শেখ লুৎফর রহমানের শেষ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করবেন খায়রুল আলম সবুজ। তবে ৪০-এর পরের চরিত্রে অভিনয় করবেন চঞ্চল চৌধুরী। এই চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পেয়ে তিনিও গর্বিত। চঞ্চল বলেন, ‘ইতিহাসের অংশ হলাম। একজন অভিনয়শিল্পীর জীবনে এর চেয়ে বড় সৌভাগ্যের আর কী হতে পারে!’

default-image

‘বঙ্গবন্ধু’ সিনেমার মহরত অনুষ্ঠানে অন্য অনেকের সঙ্গে দেখা যায় সংগীত পরিচালক শান্তনু মৈত্রকে। তিনিই ছবিটির সংগীত পরিচালনা করবেন। আজ সোমবার বিকেলে শান্তনু মৈত্র প্রথম আলোকে জানান, বঙ্গবন্ধুর জীবনীচিত্রের সংগীত পরিচালক হিসেবে কাজ করবেন তিনি। এই চলচ্চিত্রে কাজ করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছেন ভারতীয় এই সংগীত পরিচালক।

তিনি বলেন, ‘আমি অত্যন্ত সৌভাগ্যবান এবং সম্মানিত এই ভেবে যে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে নির্মিত ছবিটির সংগীতের সব কাজের ব্যাপারে শ্যাম বেনেগাল আমার ওপর আস্থা রেখেছেন। এখন আমার একটাই চাওয়া, আমার প্রতি দেখানো আস্থা ও বিশ্বাসের মর্যাদা যেন রাখতে পারি।’

চলতি বছরের মার্চে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকীতে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ‘বঙ্গবন্ধু’ ছবিটির। কিন্তু কোভিড–১৯-এর কারণে সব পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। বঙ্গবন্ধুর জীবনী অবলম্বনে নির্মিতব্য ছবিটি পরিচালনা করছেন খ্যাতিমান চলচ্চিত্রকার শ্যাম বেনেগাল। প্রথম আলোকে গত শনিবার তিনি বলেন, ‘আজ শুটিংয়ের তৃতীয় দিন। মুম্বাইয়ের ফিল্ম সিটিতে এই ছবির শুটিং চলছে। বিশাল সেট নির্মাণ করা হয়েছে। বাংলাদেশের গ্রাম, বঙ্গবন্ধুর জন্মভিটা, অর্থাৎ টুঙ্গিপাড়ার বাসার আদলে সেট বানানো হয়েছে।’

default-image

শুটিংয়ের অগ্রগতি প্রসঙ্গে বেনেগাল বলেন, ‘মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত মুম্বাইয়ে প্রথম লটের শুটিং শিডিউল করা হয়েছে। ঢাকা থেকে অভিনয়শিল্পীরা চলে এসেছেন। ভালোভাবেই শুটিং চলছে।’ এর আগে শ্যাম বেনেগাল বলেছিলেন, ‘বঙ্গবন্ধু’ চলচ্চিত্রের অধিকাংশ শুটিং বাংলাদেশেই হবে।

প্রসঙ্গটি মনে করিয়ে দিতেই তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে অবশ্যই শুটিং হবে। মুম্বাইয়ের শিডিউল শেষ হলে বাংলাদেশে যাব। প্রথম লটের শুটিং শেষে একটু বিরতি নিয়ে বর্ষায়, অর্থাৎ জুলাইয়ে বাংলাদেশে শুটিং শুরু করার পরিকল্পনা করেছি।’

default-image

এত বড় ক্যানভাসের ছবিতে বলিউডের কোনো অভিনেতাকে দেখা যাবে? এমন প্রশ্নে এই পরিচালক বলেন, ‘আগেও বলেছি, অধিকাংশ অভিনেতা থাকবেন বাংলাদেশের। ওখানে দুর্দান্ত সব অভিনেতা। অডিশনের সময় তা টের পেয়েছি। কাজ করেও খুব ভালো লাগছে। আর বাংলা ভাষায় ছবি, তাই বাংলাদেশের অভিনেতা নেওয়াই সঠিক সিদ্ধান্ত। যেহেতু বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে ছবি, তাই তাঁকে বাংলাদেশের অভিনেতারা বেশি অনুভব করতে পারবেন। তবে পাঠান, পাঞ্জাবি চরিত্রের জন্য ভারতীয় অভিনেতার কথা হয়তো ভাবব, যদিও এখনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি।’

এরই মধ্য যে কদিন শুটিং হয়েছে, তাতে বাংলাদেশের অভিনয়শিল্পীদের অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন বলে জানালেন শ্যাম বেনেগাল। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের অভিনেতারা উচ্চ মানের। মনপ্রাণ দিয়ে অভিনয় করছেন। আর ছবিটা যেহেতু বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে, তাই তাদের আবেগও কাজ করছে অনেক।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন