ভারতের মুম্বাইয়ে দীঘি শুটিং করছিলেন বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে। শুটিং শেষে জানতে পারলেন, বাংলাদেশে চলছে লকডাউন। ভারতের মুম্বাইয়ে থাকা তরুণ এই অভিনয়শিল্পীর শুটিং শেষ হলেও আপাতত দেশে ফিরতে পারছেন না। এ নিয়ে কী মন খারাপ তাঁর? দীঘি জানালেন, মোটেও না। আটকা পড়ে তাঁর ভালোই লাগছে।  

শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের চরিত্রে দেখা যাবে দীঘিকে। অভিনয়জীবনের এত কম বয়সে তাঁর মতো নামকরা পরিচালকের ছবিতে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র করছেন, এ যেন বিশ্বাসই হচ্ছে না তাঁর।

default-image

সম্প্রতি এই ছবিতে শেষ হয়েছে দীঘির অংশের শুটিং। তবে বাংলাদেশে লকডাউন শুরু হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছেন দীঘি। তবে আটকা পড়ে ভালোই লাগছে। কীভাবে যে সময় পার হয়ে যাচ্ছে, টেরই পাচ্ছেন না। দ্বিতীয় লটের শুটিংয়ে অংশ নিতে গত ২৫ মার্চ মুম্বাই গিয়েছিলেন শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী দীঘি। আশা করছেন, শিগগিরই ঢাকায় ফেরার টিকিট পেয়ে যাবেন।

default-image
বিজ্ঞাপন

শুরুতে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের শুটিং ঢাকায় শুরুর কথা থাকলেও শেষে ভারতের মুম্বাইয়ে শুরু হয়। এই  ছবিতে দীঘির সহশিল্পী আরিফিন শুভ। কেননা, তাঁকে দেখা যাবে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে। দীঘি বললেন, ‘তিনি খুবই কো–অপারেটিভ। আর এইটুকু বয়সে শ্যাম বেনেগালের মতো পরিচালকের মুখে আমার প্রশংসা শুনেছি! এর চেয়ে বড় পাওয়া আর হয় না।’

দীঘিসহ বাংলাদেশ থেকে যাঁরা এই ছবিতে অভিনয় করছেন, তাঁরা সবাই রয়েছেন সেখানকার একটি পাঁচতারা হোটেলে। এই হোটেলের পুলসাইডে বসে সময় কাটছে আবার চলে যাচ্ছেন শপিংয়ে। কী কী কিনলেন? উত্তরে দীঘি জানালেন, ‘নিজের জন্য, আত্মীয়–বন্ধুদের জন্য উপহার। আমার আবার নতুন জুতা আর জামার খুব শখ। নিজের জন্য সেগুলো নিয়েছি। বেশ কয়েক জোড়া জুতা আর জামা কিনলাম। ভালোই লাগছে। সুন্দর সময় কেটে যাচ্ছে।’  

default-image

প্রধান চরিত্রের অভিনয়শিল্পী হিসেবে এরই মধ্যে মুক্তি পেয়েছে দীঘির দুটি চলচ্চিত্র। ‘তুমি আছো তুমি নেই’ আর ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াভাই’। দুটি ছবির কোনোটাই দেখা হয়নি দীঘির। বললেন, ‘নিজের অভিনীত কোনো ছবিই দেখা হয়নি। আশা করছি ঢাকায় ফিরে দেখব।’ এসবের এক ফাঁকে দীঘি সুমন ধরের ‘চিঠি’ সিনেমার শুটিং করেছেন। এখানে তাঁর বিপরীতে আছেন ইয়াশ রোহান।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন