বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কিন্তু এই গুঞ্জনের নেপথ্যে কারণ কী? তিনি মনে করেন, যেহেতু সনেট নোলক ছবির প্রযোজক আর মুক্তির আগে ছবিটি নিয়ে ঝামেলা হয়েছিল বলে প্রচারে বেশি সময় দিয়েছিলেন ববি। ‘প্রচারে বেশি সময় দেওয়া ও সনেটের সঙ্গে রেস্তোরাঁ ব্যবসা করার কারণেই অনেকে এই বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। অথচ সনেটের সঙ্গে অনেক আগে থেকেই আমাদের পারিবারিক সম্পর্ক।’

default-image

এই করোনাকালে ঢাকার চলচ্চিত্রে সহকর্মীরা অনেক আগে কাজে নেমে পড়েছেন। অথচ প্রায় দেড় বছর হয়ে গেল, এখনো কাজ শুরু করেননি ববি। সবশেষ গত বছরের জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝিতে আকবর—ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন ঢাকা ছবির একটি গানের শুটিংয়ে অংশ নেন এই অভিনেত্রী।

default-image

দীর্ঘদিন কাজে না ফেরাতেই গুঞ্জনকে সত্যি মনে করছেন অনেকে। এ ব্যাপারে ববির বক্তব্য, ‘এই সময়ের মধ্যে বেশ কিছু কাজের প্রস্তাব ছিল। কিন্তু পছন্দ না হওয়াতে করিনি। আগে যেসব কাজ করেছি, সেই মানের মতো না হলে কাজ করব না। কয়েকটি দীর্ঘ ওয়েব সিরিজের প্রস্তাব ছিল, করিনি। দীর্ঘ সিরিজ করবও না। বড় কথা, গত দেড় বছরে সিনেমা নির্মাণ ব্যাপক হারে কমেছে।’

default-image

গুঞ্জনকে তাহলে সত্যি রূপ দেবেন কবে?—এই প্রশ্নের উত্তরে ঢালিউডের এই নায়িকা বলেন, ‘বিয়ে নিয়ে আলাদা কোনো ভাবনা আমার নেই। কখনো যদি হয়, হবে। আবার এমনও হতে পারে, কখনো বিয়েই করলাম না।’

default-image

ঈদের পরপরই কাজে নামার ইঙ্গিত দিলেন ববি। জানান ‘ময়ূরপঙ্খী’ ও ‘হেডলাইন’ নামে দুটি ওয়েব সিরিজের কাজ করার কথা আছে। বলেন, ‘কাজ দুটি নিয়ে কথাবার্তা মোটামুটি চূড়ান্ত হয়ে আছে। এখন ঈদের পর পরিস্থিতি কী হয় দেখা যাক।’ তার আগে চলতি বছরের প্রথম দিকে রণযোদ্ধা নামের একটি বড় বাজেটের সিনেমায় কাজের কথা ছিল।

default-image

সাতজন পরিচালক মিলে ছবিটি নির্মাণ করবেন। সেই কাজেরও খবর নেই। এ ব্যাপারে ববি বলেন, ‘এটি মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটের ছবি। অনেক বড় ইউনিটের কাজ। ঢাকার বাইরে শুটিং হবে। কিন্তু করোনার কারণে সেই সুযোগই তো হচ্ছে না। বারবার শিডিউল পেছাচ্ছে। এখন এই পরিস্থিতির উন্নতি না হলে কবে কাজ শুরু করা যাবে, তা–ও নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।’ তবে তিনি জানান, কাজ শুরু করার সব প্রস্তুতিই নেওয়া আছে। পরিস্থিতি ভালো হলেই শুটিং শুরু হবে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন