default-image

বিষয়টি নিশ্চিত করে কমিটির সহসাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক বলেন, ‘আজকের মিটিংয়ে সভাপতিসহ কমিটির ১১ জন উপস্থিত ছিলাম আমরা।সর্বসম্মতিক্রমে রোজিনা আপার পদত্যাগপত্রটি গৃহীত হয়। একই মিটিংয়ে গঠনতন্ত্র মোতাবেক সর্বসম্মতিক্রমে ওই পদে রিয়াজ ভাইকে নেওয়া হয়েছে।’ তবে ওই মিটিংয়ে রিয়াজ উপস্থিত ছিলেন না। এ ব্যাপারে সাইমন বলেন, ‘রিয়াজ ভাইয়ের সম্মতিক্রমেই তাঁকে কমিটিতে নেওয়া হয়েছে। কয়েক দিন আগে এ ব্যাপারে তাঁর সঙ্গে কথা বলেছিলাম আমরা। তিনি কমিটিতে থাকার সম্মতির কথা জানিয়েছিলেন।’

default-image

কিন্তু শোনা গিয়েছিল, রোজিনা সমিতিতে পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার কয়েক দিনের মাথায় আবার তুলে নেবেন। সেই সময় এমন খবর গণমাধ্যমেও এসেছিল। এ ব্যাপারে সাইমন সাদিক বলেন, ‘কই না তো, তিনি পদত্যাগপত্রটি তুলে নেননি। আমি নিজ থেকেই গত বৃহস্পতিবার রোজিনা আপাকে ফোন করেছিলাম। তিনি ঠিকমতো সমিতিতে সময় দিতে পারবেন না। এ কারণে পদে থাকতে চাননি।’
এদিকে কার্যকরী পরিষদের সদস্য হিসেবে নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়টি লোকমুখে শুনেছেন বলে জানান রিয়াজ।

তিনি বলেন, ‘আমি শুনেছি, রোজিনা আপার পদত্যাগের কারণে কার্যকরী পরিষদের একটি সদস্যপদ শূন্য হয়েছিল। ওই পদে আমাকে নেওয়া হয়েছে। যাঁরা আমাকে যোগ্য মনে করে কমিটিতে নিয়েছেন, তাঁদের ধন্যবাদ। তবে লিখিত চিঠি এখনো পাইনি আমি। পেলে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানো যাবে।’ এই নায়ক বলেন, ‘দেখুন, কমিটিতে না থাকলেও শিল্পী সমিতির একজন সদস্য হিসেবে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে বিগত দিনেও কাজ করেছি, এখনো করতে চাই। তবে কমিটিতে থেকে আরও ভালোভাবে কাজ করা যায়।’

default-image

এফডিসিতে সমিতির কার্যালয়ে মিটিং শুরু হয় বিকেল চারটায়, চলে প্রায় ছয়টা পর্যন্ত। এদিনের মিটিংয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন, অঞ্জনা, অমিত হাসান, নিপুণ, শাহনূর, আরমান, কেয়া, ইমন প্রমুখ।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন