সচল হচ্ছে সিনেমাপাড়া
সচল হচ্ছে সিনেমাপাড়াকোলাজ: আমিনুল ইসলাম


গত জুন মাসের শুরুর দিকে শুরু হয়ে পুরোদমে চলছে টেলিভিশন নাটক ও বিজ্ঞাপন নির্মাণ। তবে ভিন্নচিত্র সিনেমাপাড়ায়। বিচ্ছিন্নভাবে দু–এক দিন শুটিং হলেও পুরোদমে সিনেমার শুটিং শুরু হয়নি এখনো। গত পাঁচ মাস কার্যত সিনেমাপাড়া অনেকটাই নীরব ছিল। আবার ধীরে ধীরে সচল হওয়ার আভাস মিলছে এই অঙ্গনে।

গত দেড় মাসে দায় মুক্তি, হৃদিতা, বীরত্ব, মুখোশ, মুক্তি, আ জার্নি উইথ ইউ, বর্ডার, নবাব এলএলবি, গ্যাংস্টার, ধামাকা, শুভ সকাল, প্রিয়া রে, আর্শিবাদসহ প্রায় দেড় ডজন নতুন ছবির ঘোষণা হয়েছে। এর মধ্যে আ জার্নি উইথ ইউ ছবির দুই দিন শুটিংও হয়েছে। নবাব এলএলবি ছবির ছোট আয়োজনে কিছু শুটিং শুরু হয়েছে রোববার থেকে। ৫ সেপ্টেম্বর থেকে মূল শুটিং শুরু হবে ছবিটির। বাকি ছবিগুলোর পরিচালকেরা জানিয়েছেন, চলতি মাসের মাঝামাঝি থেকে পর্যায়ক্রমে শুটিং শুরু হবে ছবিগুলোর।
প্রযোজক ও পরিচালক সমিতি সূত্র জানিয়েছে, ১৫ সেপ্টেম্বর সিনেমা হল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত আসতে পারে। নতুন ছবি যদি কিন্তু তবুও–এর শুটিং ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক শিহাব শাহীন। পাশাপাশি করোনার কারণে শুটিং আটকে থাকা অনেক ছবির শুটিংয়ের নতুন শিডিউল করা হচ্ছে।

default-image
বিজ্ঞাপন
‘সুন্দরবন ও আশপাশের জেলার অংশের শুটিং শেষ হয়েছে গত মার্চ মাসে। সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগামী ১০ থেকে ২০ অক্টোবর ঢাকায় ছবির বাকি অংশের শুটিং করব।’
দীপঙ্কর দীপন, পরিচালক
default-image

অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন ছবির শুটিং এপ্রিল মাস থেকে আটকে আছে। ছবির পরিচালক রায়হান জুয়েল জানান, ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকায় ছবির বাকি কাজ শুরু হওয়ার কথা আছে। অপারেশন সুন্দরবন ,ছবির আর ১০ দিনের শুটিং বাকি আছে। ছবির পরিচালক দীপঙ্কর দীপন বলেন, ‘সুন্দরবন ও আশপাশের জেলার অংশের শুটিং শেষ হয়েছে গত মার্চ মাসে। সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগামী ১০ থেকে ২০ অক্টোবর ঢাকায় ছবির বাকি অংশের শুটিং করব।’

সাফি উদ্দীনর সিক্রেট এজেন্ট ছবির বাকি অংশের শুটিং শুরু হবে ১৫ সেপ্টেম্বরের থেকে এবং সৌরভ কুন্ডুর গিরিগিটি ছবির শুটিংয়ের নতুন শিডিউল করা হয়েছে ২০ অক্টোবর ২০। সৈকত নাসিরের আকবর ছবির শুটিং অক্টোবরের মাঝামাঝি এবং ১ নভেম্বর থেকে রায়হান রাফির ইত্তেফাক ছবির শুটিং শুরু হওয়ার কথা আছে।

বিজ্ঞাপন
‘শিগগিরই সিনেমাপাড়া সচল হয়ে যাবে’
বদিউল আলম খোকন, পরিচালক সমিতির মহাসচিব

সিনেমাপাড়া সচল হওয়ার ব্যাপারে পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন বলেন, ‘শিগগিরই সিনেমাপাড়া সচল হয়ে যাবে। এর মধ্যে অনেক নতুন ছবির ঘোষণা এসেছে। পর্যায়ক্রমে শুটিং শুরু হবে এসব ছবির। ১৫ সেপ্টেম্বর তথ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমাদের হল খোলার ব্যাপারে মিটিং আছে। ওই দিনই হল খোলার সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে আশা করছি।’

বিজ্ঞাপন

প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম বলেন, ‘প্রতিকূল পরিস্থিতির কারণে সিনেমার সব কাজ বন্ধ ছিল। তবে আস্তে আস্তে সিনেমার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। এর মধ্যে রাষ্ট্রও এগিয়ে এসেছে। প্রণোদনা দিচ্ছে। তথ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ১৫ সেপ্টেম্বর আমাদের মিটিং আছে। আমাদের কিছু দাবিদাওয়া আছে। সিনেমা শিল্পের ব্যাপারে সরকারের ইতিবাচক মনোভাব আছে। আশা করছি সিনেমার চাকা সচল হতে সময় লাগবে না।’
করোনার প্রভাবে মার্চ মাসের শেষ থেকে সিনেমার কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

default-image
মন্তব্য পড়ুন 0