‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির দৃশ্যে সিয়াম ও নুসরাত ফারিয়া
‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির দৃশ্যে সিয়াম ও নুসরাত ফারিয়াছবি : সংগৃহীত

‘সুন্দরবন আমাদের বহুবার বাঁচিয়েছে, এবার আমরা সুন্দরবনকে বাঁচাব’—এমন সংলাপে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির টিজার প্রকাশে আসা অতিথিরা চমকে ওঠেন। চলচ্চিত্রের পর্দায় অন্য রকম এক সুন্দরবনকে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’খ্যাত পরিচালক দীপংকর দীপন। ইউটিউবে প্রকাশিত মন্তব্যের ঘরে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির টিজার নিয়ে প্রশংসাবাক্যই ছিল বেশি। কেউ তো আবার এমনও বলেছেন, এ রকম কয়েকটা সিনেমা মুক্তি পাবে, যা হয়তোবা বাংলা সিনেমার রং বদলে দেবে, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ তেমনই একটি ছবি।

default-image

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকার আর্মি গলফ গার্ডেনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির টিজার প্রকাশ করা হয়। একই অনুষ্ঠানে ছবিটির ওয়েবসাইটও প্রকাশ করা হয়। জানানো হয়, আগামী ঈদুল আজহায় ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়া হবে। সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। ছবির তারকার পাশাপাশি বিনোদন অঙ্গনের অন্য তারকাদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানে সরাসরি পরিবেশন করা হয় সিনেমার দুটি গান। এর আগে ছবিটির অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি বক্তব্যও দেন তিনি। স্বাগত বক্তব্য দেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন চলচ্চিত্রটির পরিচালক দীপংকর দীপন, র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার, র‌্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন।

default-image
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘এই ছবির বাজেট খুবই অল্প; কিন্তু যেসব উপকরণ, সুযোগ-সুবিধা, যেসব উইপন এবং যেসব লজিস্টিক ব্যবহৃত হয়েছে, একই সঙ্গে র‌্যাবের প্রশিক্ষিত সদস্যদের অবদান রয়েছে—সবকিছুকে টাকায় হিসাব করলে আমার ধারণা, এই ছবি বানাতে ৩০ থেকে ৪০ কোটি টাকা লাগত। কিন্তু সেটি স্বল্প ব্যয়ে সম্পন্ন হয়েছে। কারণ, এই ছবি তৈরিতে আমরা ব্যাপকভাবে সহযোগিতা করেছি।’

default-image

বেনজীর আহমেদ জানালেন, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ নামের যে ছবি তৈরি হয়েছে, তাতে র‌্যাবের কারিগরি ও অপারেশনাল সামর্থ্য তুলে ধরা হয়েছে। অত্যাধুনিক যেসব ইকুইপমেন্ট আছে, তা এই ছবি তৈরিতে ব্যবহৃত হয়েছে। ফলে ছবিটি বাংলাদেশের মানুষের মন জয় করতে পারবে। এমনকি সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে–ছিটিয়ে থাকা ৩৩-৩৪ কোটি বাঙালির মন জয় করতে পারবে বলেও তাঁর বিশ্বাস। তিনি এ ছবিকে বাংলাদেশের বর্তমান সময়ের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে থাকা একটি ছবি হিসেবেই মনে করছেন।
টিজার প্রকাশ অনুষ্ঠানের প্রথম ভাগে ছিল অতিথিদের বক্তব্য, টিজার ও ওয়েবসাইটের উদ্বোধন। দ্বিতীয় ভাগে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে ছবির দুটি গানে নাচ পরিবেশন করেন ফ্লাই ফারুক ও তাঁর দল। নৃত্য পরিবেশনায় ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির দুটি গানের আংশিক পরিবেশিত হয়। ছিল ব্যান্ড সোলসের পরিবেশনাও। আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন ছবির পরিচালক দীপংকর দীপন, অভিনয়শিল্পী রিয়াজ, নুসরাত ফারিয়া, সিয়াম আহমেদ, রোশান, তারিন জাহান প্রমুখ।

default-image

‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমায় র‍্যাবের সুন্দরবনের বিভিন্ন অভিযানের ছবি উঠে আসবে। সেই সঙ্গে সুন্দরবনের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকেও তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে একসময় দস্যুদের অবাধ বিচরণ ছিল। যার ফলে সুন্দরবন নিয়ে সাধারণ মানুষের ভয় ছিল। সুন্দরবনের মানুষ জীবিকা নির্বাহের জন্য মাছ ধরতে ও মধু সংগ্রহ করতে পারতেন না। এখন সুন্দরবন দস্যুমুক্ত। র‍্যাবের এই দুঃসাহসিক অভিযানকে উপজীব্য করেই নির্মিত হয়েছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’।

default-image

পরিচালক দীপংকর দীপন জানান, দেশপ্রেম, রোমাঞ্চ, রহস্য, সাহস, দীর্ঘদিনের অপরাধের শিকড় উন্মোচন, অপরিসীম প্রতিকূল ও রহস্যে ঘেরা বনভূমি সুন্দরবন নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘অপারেশন সুন্দরবন’ প্রযোজনা করেছে র‌্যাব ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড। সিনেমাটি নিয়ে এরই মধ্যে দর্শকের আগ্রহ দেখা দিয়েছে। ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমার শুটিং শুরুর আগে এক বছরের বেশি সময় সুন্দরবনের বিভিন্ন অঞ্চল ঘুরে বেড়িয়েছে পরিচালক দীপংকর দীপন ও তাঁর দল। সিনেমার শুটিং হয়েছে মুন্সিগঞ্জ, খুলনা, সাতক্ষীরা, লবণচরা, সুন্দরবনের দুবলার চর, কটকা, কালিকা চর ও মোংলায়। এ ছাড়া পোড়াবাড়ী, গাজীপুর, র‌্যাব ট্রেনিং স্কুল, র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরে শুটিং হয়েছে।

default-image
বিজ্ঞাপন
ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন