বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ছবির পরিচালক আবদুস সামাদ খোকন জানান, হঠাৎ করে নায়ক সরে যাওয়ার কারণে নতুন করে নায়ক খুঁজতে হয়েছে। আবার শুটিংয়ের আয়োজন করতে হয়েছে। এ কারণে শুটিং এক মাস পিছিয়েছে।

default-image

বর্ষণের সরে যাওয়া প্রসঙ্গে পরিচালক বলেন, ‘শুটিং সিডিউল জানানোর কয়েক দিন পর হঠাৎ করেই বর্ষণ এসে আমাকে জানালেন একই সিডিউলে সে অন্য একটি ছবির কাজ করতে চান। ওই ছবিতে আগেই নাকি তাঁর সিডিউল দেওয়া ছিল। ছবিটিতে পারিশ্রমিকও বেশি। কাজটি তাঁর ক্যারিয়ারের জন্য ভালো হবে। আমি বিষয়টিকে নেতিবাচকভাবে দেখিনি। ভাবলাম, ওই ছবিটি যদি তাঁর জন্য ভালো হয়, করুক। তবে তাঁর কারণে নতুন করে আবার শুটিং আয়োজন করতে হচ্ছে।’

বর্ষণের জায়গায় শুভ চরিত্রে গাজী আবদুর নুরকে নেওয়া হয়েছে। তিনি একজন থিয়েটার কর্মী। পরিচালক বলেন, ‘এই চরিত্রের জন্য একজন ভালো অভিনেতা দরকার ছিল। নুর নিয়মিত থিয়েটার করেন। অভিনয়দক্ষতা আছে। চরিত্রটিতে তাঁকে বেশ মানাবে।’
ইমদাদুল হক মিলনের ‘শ্রাবণ জোছনায়’ উপন্যাস থেকে ছবিটি তৈরি হচ্ছে। রোমান্টিক প্রেমের গল্প নিয়ে এর কাহিনি। পরিচালক জানালেন ১৫ অক্টোবর থেকে ঢাকার লোকেশনে শুটিং শুরু হবে। প্রথম ধাপে এক সপ্তাহ কাজ হবে। পরের ধাপের কাজগুলো ঢাকার বাইরে হবে। ছবির নায়িকা হিসেবে চরিত্রে অভিনয় করবেন দীঘি।

‘শ্রাবণ জোছনায়’ ছবির পরিবর্তে খিজির হায়াত খানের ‘ওরা সাতজন’ ছবিতে কাজ করছেন ইশতিয়াক বর্ষণ। এখন সিলেটের লোকেশনে শুটিংয়ে আছেন। সেখান থেকে মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘“শ্রাবণ জোছনায়” চুক্তি করেছিলাম। কিন্তু আগে থেকে আমাকে ছবিটির শুটিংয়ের সিডিউল দেওয়া হয়নি। এখন যে ছবির শুটিং করছি, সেটির সিডিউল আগেই দেওয়া ছিল। পরে “শ্রাবণ জোছনায়” ছবির সিডিউল করা হলে এই ছবির সঙ্গে মিলে যাচ্ছিল। এ কারণে সরে আসতে হয়েছে। তবে এটি আমি পরিচালকের সঙ্গে সমঝোতা করেই করেছি। সমস্যা হয়নি।’
মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ ছবিতে অভিনয় করে পরিচিতি পান ইশতিয়াক বর্ষণ।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন