সালমানভক্তদের চিৎকার, আহাজারি, কান্না দেখেছি, বললেন নির্মাতা সায়মন তারেক
সালমানভক্তদের চিৎকার, আহাজারি, কান্না দেখেছি, বললেন নির্মাতা সায়মন তারেকসংগৃহীত

সালমান শাহর জন্মদিনে প্রয়াত এই নায়ককে নিয়ে ছবি নির্মাণের ঘোষণা এলো। পুরো ছবি সালমান শাহকে ঘিরে। যদিও ছবিতে দর্শক প্রিয় এই নায়কের চরিত্রে কাউকে অভিনয় করতে দেখতে পাবেন না। ছবির গল্প এগোবে সালমান শাহর একজন ভক্তকে কেন্দ্র করে। প্রয়াত এই নায়ককে দেখা যাবে সিনেমা হলের পর্দায়, রাস্তার পোস্টারে ও ভিউকার্ডে। সালমান শাহকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণের ঘোষণা দিলেন নির্মাতা সায়মন তারেক।

default-image
বিজ্ঞাপন

সিনেমার গল্পটি ১৯৯৬ সালের প্রেক্ষাপটে লেখা। এর নাম হবে ‘স্বপ্নের ফেরিওয়ালা’। সম্প্রতি এফডিসিতে চলচ্চিত্রটির নাম নিবন্ধন করা হয়েছে। গল্পের মূল চরিত্রের অভিনেতা এক কলেজছাত্র, যিনি সালমান শাহর অন্ধভক্ত। সালমান শাহর সব সিনেমা তার দেখা। প্রিয় নায়কের ভিউকার্ড, পোস্টার সংগ্রহ করে কাছে রাখে তিনি। শুধু তাই নয় সালমান শাহর মতো হাঁটে, এমনকি প্রিয় নায়কের মতো কথা বলারও চেষ্টা করে এই কলেজছাত্র। তার অস্তিত্বজুড়ে শুধুই সালমান। নির্মাতা সায়মন তারেক জানান, ব্যক্তিজীবনে সালমান শাহ তাঁর বন্ধু ছিলেন। বন্ধুর প্রতি ভালোবাসা থেকেই ছবিটি নির্মাণ করছেন তিনি। তরুণ প্রজন্মের কাছে তিনি সালমানকে তুলে ধরতে চান। তিনি জানান, ‘সালমান যেদিন মারা যায়, সেদিন আমি এফডিসিতে শুটিং করছিলাম। তখন আমি সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করি। তাঁর মৃত্যুর খবর শোনামাত্র শুটিং প্যাকআপ হয়ে যায়। সেদিন আমার কাছে রিকশাভাড়া দেওয়ার মতো কোনো টাকা ছিল না। তাই সালমানকে দেখতে এফডিসি থেকে পায়ে হেঁটে ঢাকা মেডিকেলে গিয়েছিলাম। পরে তাঁকে গোসল করানো থেকে শুরু করে লাশ সিলেটে নিয়ে যাওয়ার সময়ও আমি সঙ্গে ছিলাম।’

বিজ্ঞাপন
default-image

সবার প্রিয় নায়ক সালমান শাহকে যখন লাশবাহী গাড়িতে করে সিলেটে নিয়ে যাওয়া হয়, তখনো এই নির্মাতা নিজের চোখে দেখেছেন মানুষের ভিড়। সেদিন তাঁর সঙ্গে ছিলেন কৌতুকাভিনেতা বিজয়। তিনি কৌতুকাভিনেতা হিসেবে সালমান শাহর সঙ্গে প্রায় সব ছবিতে কাজ করেছেন। সেই দিন রাস্তায় দেখা অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে নির্মাতা সায়মন তারেক বলেন, ‘যখন আমরা ঢাকা থেকে লাশ নিয়ে সিলেটে রওনা দিই, তখন রাস্তার দুই পাশে সালমানভক্তদের চিৎকার, আহাজারি, কান্না দেখেছি। অনেক ভক্ত সেদিন গাড়ির সামনে শুয়ে পড়েছিলেন, লাশ না দেখালে তাঁরা রাস্তা থেকে উঠবেন না—এমন অনেক ঘটনা রয়েছে। সেসব স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্যই ‘স্বপ্নের ফেরিওয়ালা’ নামের ছবি নির্মাণ করছি। এখানে সালমান কেমন, সেটা দর্শকদের কল্পনার ওপর ছেড়ে দেওয়া হবে।’ তিনি আরও জানান, কেন সালমান শাহর জন্য মানুষ আত্মহত্যা করেছিল, কান্না করেছিল—সেই ঘটনাগুলোও সিনেমার গল্পে উঠে আসবে। গল্পে ২৫ বছর আগের কিছু ঘটনা উপস্থাপনা করা হবে। ছবিতে সালমানেরভক্তের চরিত্রে অভিনয় করবেন আফফান মিতুল। আরও অভিনয় করবেন অভিনেত্রী শীতল ও গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের কয়েকজন অভিনয়শিল্পী। সম্প্রতি ছবির শিল্পীদের নিয়ে একটি ফটোশুট করা হয়েছে। নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে ছবিটির শুটিং শুরু হবে বলে জানান নির্মাতা। এটি লিখেছেন আলী আফফান আহমেদ।

বিজ্ঞাপন

আজ ১৯ সেপ্টেম্বর সালমান শাহর জন্মদিন। ১৯৭১ সালে তাঁর জন্ম। সালমান শাহ মারা গেছেন ১৯৯৬ সালে। মাত্র পাঁচ বছরের চলচ্চিত্রজীবনে তিনি অভিনয় করেছেন ২৭টি ছবিতে। তাঁর প্রথম ছবি ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। তাঁর বেশির ভাগ ছবিই দারুণ ব্যবসাসফল হয়।

মন্তব্য পড়ুন 0