এদিকে ছবিগুলো পরিবেশনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবার ঈদে সিনেমার হলসংখ্যা কমে গেছে। গত ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাওয়া বিদ্রোহী, গলুই, শান—এই তিনটি সিনেমা ১৭০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু এবারের ঈদে তিন সিনেমার হলসংখ্যা ১৪২, যা গত ঈদের চেয়ে ২৮টি কম। এর বাইরে আরও ৩৩টি হলে পুরোনো ছবি প্রদর্শন করা হবে। সব মিলিয়ে এবার ঈদে ১৭৫টি সিনেমা হল চালু থাকবে।

প্রদর্শক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন জানান, কোরবানির ঈদে সিনেমার ব্যবসা একটু কমই হয়। তবে শাকিব খানের নতুন সিনেমা থাকলে হয়তো আগের ঈদের ছবির হলসংখ্যাই থাকত। তিনি বলেন, শাকিব খান বাংলাদেশের বড় তারকা। তাঁর একটা বড় দর্শক গোষ্ঠী আছে। শাকিবের নতুন সিনেমা থাকলে এবারও হলসংখ্যা গত ঈদের মতোই হতো। তবে এই ঈদে অনেকগুলো প্রেক্ষাগৃহে শাকিব খানের পুরোনো ছবি চলবে।

ঈদের তিন ছবির মধ্যে সবচেয়ে বড় বাজেটের ছবি দিন দ্য ডে। কিছুদিন আগে যৌথ প্রযোজনার এই ছবিটির প্রযোজক ও নায়ক অনন্ত জলিল জানিয়েছিলেন, দেশের ১৪৫টি হলে মুক্তি পাবে দিন দ্য ডে। কিন্ত শেষ মুহূর্তে এসে মোর্তেজা অতাশ জমজম পরিচালিত ছবিটির পরিবেশক জাজ মাল্টিমিডিয়া জানিয়েছে, সিনেপ্লক্সে, ব্লকবাস্টার সিনেমাস, ঢাকার বড় বড় হলসহ দেশের ১০৯টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে এটি।

এদিকে পরিবেশনা প্রতিষ্ঠান টিওটি সূত্রে জানা গেছে অনন্য মামুনের সাইকো ছবিটি ঢাকার যুমনা ব্লকবাস্টার সিনেমাস, লায়ন সিনেমাসসহ দেশের ১৮টি প্রেক্ষাগৃহে দেখা যাবে। অন্যদিকে রায়হান রাফি পরিচালিত পরাণ–এর পরিবেশক প্রতিষ্ঠান অভি কথাচিত্র জানিয়েছে, ঢাকায় সিনেপ্লেক্সের সব শাখা, ব্লকবাস্টার সিনেমাসসহ দেশের ১৫টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে ছবিটি। পরিবেশক প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার জাহিদ হাসান বলেন, ‘আমরা কম সময়ের মধ্যে পরাণ মুক্তির পরিকল্পনা করেছি। আগেই বড় হলগুলো দিন দ্য ডে নিয়ে গেছে। এ কারণে আমাদের হলসংখ্যা কম। তবে বড় কয়েকটি হলের সঙ্গে কথা হয়েছে। আশা করছি, দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে আরও পাব।’

নতুন ছবির পাশাপাশি ঈদে চলবে পুরোনো ছবিও। টিওটির ব্যবস্থাপক মঞ্জুর রহমান জানিয়েছেন, শাকিব খানের গলুই দেশের ১৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। এর মধ্যে আছে মঠবাড়িয়ার ও খেপুপাড়ার আলিম সিনেমা, গলাচিপার লিপি সিনেমা, চর আলেকজান্ডারের বানী সিনেমা, শাহজাদপুরের গৌরী ইত্যাদি হল। এ ছাড়া বিদ্রোহী, শানশ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২ নতুন করে ১৫ থেকে ২০টি হলে মুক্তি পাবে।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন