default-image

ঢাকার মঞ্চে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় নতুন নাটক এসেছে। মঞ্চস্থ হয়েছে ‘একা এক নারী’ নাটকের প্রথম প্রদর্শনী। এক বহুতল ভবনের ফ্ল্যাটে তালাবদ্ধ নিঃসঙ্গ এক নারীর সংলাপের মাধ্যমে এগিয়ে যায় নাটকের গল্প। নিত্যদিনের গৃহস্থালি কাজ, অশ্লীল অস্বস্তিকর ফোন, বিপরীত ফ্ল্যাটের অতি উৎসাহী তরুণের সংগোপন বাইনোকুলারের দৃষ্টি, উদগ্র যৌন কামনায় পীড়িত দেবর, আর সদাক্রন্দনরত শিশুসন্তানের মোকাবিলা করতে করতে এই নারী তার জীবনের আশা-নিরাশা, ভালোবাসার কথা দর্শকের সঙ্গে ভাগাভাগি করে মঞ্চে।

নাটকটি এনেছে নাট্যচক্র। ইতালির নোবেল বিজয়ী সাহিত্যিক, নাট্যকার ও অভিনেতা দারিও ফো এবং ফ্রাংকা রামে রচিত এ উমেন এলোন নাটকের অনুবাদ একা এক নারী নাটকটি দলের ৫৪ তম প্রযোজনা। অনুবাদ করেছেন অধ্যাপক আবদুস সেলিম এবং নির্দেশনা দিয়েছেন দেবপ্রসাদ দেবনাথ। নাটকটিতে একক অভিনয় করছেন তনিমা হামিদ।

গতকাল শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার মিলনায়তনে নাটকটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

উদ্বোধন করে ফেরদৌসী মজুমদার বলেন, ‘আজ মিলনায়তনে এত দর্শক দেখে ভালো লাগছে। তনিমা প্রথম কোনো নাটকে একক অভিনয় করছে। তার জন্য শুভকামনা।’ কে এম খালিদ বলেন, ‘বাংলাদেশের একক অভিনয়ের নাটকের পথিকৃৎ ফেরদৌসী মজুমদার। তিনি এই নাটকের উদ্বোধন করলেন। আর তনিমা তো ছোটবেলা থেকেই নাটকের মধ্যে বড় হয়েছে। তনিমার এই অর্জন আমাদের জন্য আনন্দের।’

নাটক শুরুর আগে কথা হয় নির্দেশক দেবপ্রসাদ দেবনাথের সঙ্গে। তিনি বলেন, একক অভিনয়ের নাটকটিতে নিঃসঙ্গ নারী মারিয়া চরিত্রের স্বগতোক্তির মধ্য দিয়ে নাট্যকারদ্বয় শত শত বছরের নারীর শারীরিক, মানসিক হেনস্তা, বঞ্চনা, অবিচার, অসাম্যতার প্রেক্ষাপটে অব্যক্ত ক্রন্দনের গল্প বলে গেছেন।

বিজ্ঞাপন
নাটক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন